অপহরণ নয়, ভালোবেসে বিয়ে করেছি: আদালতে সেই ছাত্রী

ইমরান হোসেন ইমন,ধুনট (বগুড়া): অপহরণ নয়, গত তিন বছর ধরে প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে, তাই বিয়ে করেছি। আদালতে এভাবেই জবানবন্দি দিয়েছেন বগুড়ার ধুনট উপজেলার সেই অপহৃত কলেজছাত্রী। বৃহস্পতিবার বিকালে উদ্ধারকৃত অপহৃত ছাত্রীকে বগুড়ার আদালতে হাজির করা হলে জবানবন্দি দেন তিনি।

অপহরণ মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ধুনট থানার এসআই মতিউর রহমান নিশ্চিত করে জানান, মেয়েটির বাবার দায়েরকৃত অপহরণ মামলায় তাকে উদ্ধারের পর বিজ্ঞ আদালতে জবানবন্দি প্রদানের জন্য নিয়ে যাওয়া হয়। পরে বিজ্ঞ আদালত মেয়েটির বক্তব্য পর্যালোচনা করে এবং স্বাবলম্বী হওয়ায় তাকে নিজ জিম্মায় ছেড়ে দেওয়া হয়।

এদিকে আদালতে জবানবন্দি দেওয়ার পরপরই মেয়েটির সঙ্গে স্বপনের বেশ কয়েকটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। ছবিটিতে হাস্যজ¦ল অবস্থাতেকই দেখা গেছে মেয়েটিকে।

এব্যাপারে ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কৃপা সিন্ধু বালা বলেন, বিজ্ঞ আদালত মেয়েটিকে নিজ জিম্মায় দিয়েছেন। তবে এই অপহরণ মামলার কোন আসামী এখনও জামিন নেননি।

উল্লেখ্য, ধুনট সদরপাড়া এলাকার জনৈক এক ব্যবসায়ীর কলেজ পড়–য়া মেয়েকে (১৮) গত ৮ আগস্ট বিকালে মোটরসাইকেলযোগে ধুনট উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আবু সালেহ স্বপন অপহরণ করে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ এনে মামলা করেন মেয়েটির বাবা।

এঘটনায় গত ৯ আগস্ট ওই ছাত্রীর বাবার দায়েরকৃত মামলায় ধুনট উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আবু সালেহ স্বপনসহ ৫ জনকে আসামী করা হয়। এদিকে গত ১০ আগস্ট অপহৃত মেয়েটিকে বগুড়ার আদালতের সামনের রাস্তা থেকে উদ্ধার করে ধুনট থানা পুলিশ।

আরও পড়ুন...