অসহায় চাঁদের কণার সহায় হোন প্রধানমন্ত্রী

 

পিবিএ, ঢাকা:  সিরাজগঞ্জ কাজিপুরের প্রতিবন্ধী মেয়ে চাঁদের কণার সহায় হওয়ার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিকট আহ্বান জানিয়ে বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ বলেছেন, প্রতিবন্ধী চাঁদের কণা ২৪ দিন অনশন করেছেন মেয়েটি। ধুলা ময়লা মধ্যে, না খেয়ে রাস্তায় বসে আছে সে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর একটু সহায়তায় আগামী জীবনে সে চলতে পারবে স্বক্ষমভাবে। আপনি ছাড়া সহানুভূতি দেখানোর কেউ নেই। দেশের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে আপনিই আমাদের অভিভাবক।

শুক্রবার ( ৮ নভেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে প্রতিবন্ধী মেয়ে চাঁদের কণার অনশনের প্রতি সংহতি জানিয়ে বাংলাদেশ পোয়েটস্ ক্লাব, বাংলাদেশ জাতীয় মানবাধিকার সমিতি, ভয়েস অব কাজিপুর, মানবতার কল্যাণ ফাউন্ডেশন নামক ৪ টি সংগঠনের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত মানববন্ধন কর্মসূচীতে নেতৃবৃন্দ এসব কথা বলেন।

নেতৃবৃন্দ বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এই মুহূর্তে বাংলাদেশ আপনি সবচেয়ে জনপ্রিয় নেতা। দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের গ্রাম-গঞ্জে গিয়ে সাধারণ মানুষের সঙ্গে কথা বলে জরিপ করলেও তার প্রমাণ মিলে। বাংলার দু:খী মানুষের বক্তব্য আপনি মানবিকতার উদারে সাধারন মানুষ হ্রদয় জায়গা করে নিয়েছেন। আপনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের যোগ্য কন্যা। আপনার জনপ্রিয়তা এমন যে আওয়ামী লীগের চেয়েও বেশি। আপনার কাছ থেকে শিক্ষা নেওয়া উচিত আ’লীগ সহ সর্বদলীয় নেতাদের। অসহায় চাঁদের কণা তাই আপনার দিকেই তাকিয়ে আছে। আপনার সহায়তাই পারে তাকে আগামী দিনে ভালোভাবে বেচে থাকার ব্যবস্থা করতে।

তারা বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী প্রতিবন্ধী এই মেয়েটি অনেক কষ্ট করেছে। মেয়েটা ফাস্ট ক্লাস পেয়ে মাস্টার্স কমপ্লিট করেছে শুধু তাই নয় গান বাজনা,নাটক অভিনয় কবিতা লেখা, কম্পিউটারে বিভিন্ন কাজের দক্ষতা আছে। এতেও থেমে থাকেনি সে, অর্জন করেছেন উপস্থাপনা জার্নালিস্ট অভিজ্ঞতা,কাগজের ডিজাইন। অনেক অভিজ্ঞতা ,প্রতিভা রয়েছে তার মধ্যে। তিনি শারীরিক প্রতিবন্ধি হয়েও সর্বত্র কিছু হাতে হেটে অর্জন করেছেন। তিনি সমাজ ব্যবস্থার কাছে অবহেলিত হয়েও নিজেকে নিয়ে গেছেন শিক্ষার সর্বোচ্চ শিখরে। তিনি তো শুধু একটি যোগ্যতা অনুযায়ী সরকারি চাকরি চেয়েছেন, চেয়েছেন তার মা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সাথে দেখা করতে। আমরা এই মানববন্ধন থেকে বিনীত ভাবে অনুরোধ করছি আপনার সহায়তা প্রত্যাশা করছি।

বাংলাদেশ পোয়েটস ক্লাবের ঢাকা মহানগর সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাব্বত হোসেন খানের সভাপতিত্বে কর্মসূচীতে সংহতি প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া, বাংলাদেশ জাতীয় মানবাধিকার সমিতির চেয়ারম্যান মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা, মানবতা কল্যাণ ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান, নাট্য নির্মাতা জিএম সৈকত, বাংলাদেশ পোয়েটস ক্লাবের যুগ্ম সম্পাদক নবাব সালেহ আহমেদ, ভয়েজ অব কাজীপুরের নেত্রী মিসেস লাইজু, ন্যাপ ঢাকা মহানগর সভাপতি মো. শহীদুননবী ডাবলু, ভয়েজ অব কাজীপুরের সারোয়ার হোসেন, ফারুক খান, ইকবাল মাহমুদ, পোয়েটস ক্লাবের রাজশাহী মহানগরের প্রতিনিধি নিলুফার খাতুন নিলা, চাঁদের কণার ছোট দুই ভাই মো. মাহবুবুর রহমান, মো. আবদুল মোতালেব প্রমুখ।

অনশনকারী চাঁদের কণা সংহতি প্রকাশ করা সংগঠন ও নেতৃবৃন্দের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন, আজ ২৪ দিন ধরে আমি অনশন করছি। কিন্তু আমি কোনভাবেই আমি আমার মা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে পৌছাতে পারিনি। হয়তো তার নানামুখী বস্ততার কারনে আমার খবরটা পাননি। খবর পেলে তিনি নিশ্চয়ই আমাকে ডাকতেন এবং তার বুকে জড়িয়ে নিতেন। কারন পৃথিবীর কোন মা তার সন্তানের অসহায় অবস্থা দেখে চুপ করে বসে থাকেন না। আর আমার মা তো দেশরত্ন। তার তুলনা শুধুই তিনি।

তিনি বলেন, আজ আমার প্রাণের ভাই বোনেরা ও সাংবাদিক বন্ধুরা আমার অসহায় মুহুর্তে পাশে এসে দাড়িয়েছেন। আমি তাদের প্রতি আন্তরিকভাবে কৃতজ্ঞ। সেই সাথে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই সেই সকল সংগঠন কে যারা তাদের শত ব্যস্ততার মাঝেও দুরদুরান্ত থেকে এসে আমার পাশে দাড়িয়েছেন শুধুমাত্র আমার অসহায় জীবনের কথা ভেবে। আমি বিশ্বাস করি তাদের এই কষ্ট ও ভালোবাসাই আমাকে আমার মায়ের কাছে পৌছে দেবে। আর যদি এর পড়েও আমি আমার মায়ের কাছে পৌছাতে না পারি তবে পরাজিত জীবন নিয়ে বেঁচে থাকার কোন ইচ্ছে নেই।

পিবিএ/মঞ্জুর হোসেন ঈসার /জেডআই

আরও পড়ুন...

ঘরে বসেই নিজের বিকাশ একাউন্ট খুলুন