আইইউবিএটি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজনেস ডিপার্টমেন্টের সাজেক ভ্রমণ

পিবিএ,ঢাকা : আইইউবিএটি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজনেস ডিপার্টমেন্ট এর উদ্যোগে ১২০ জন ভ্রমণ পিয়াষু শিক্ষার্থী,অভিভাবক,শিক্ষক ঘুরে এলো নৈগর্সিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি খাগড়াছড়িতে অবস্থিত মেঘে ঢাকা নয়ানাভিরাম সাজেক উপত্যকা (ভ্যালি)।

এটা বলে না দিলেও বুঝতে অসুবিধে হয় না যে, মেঘের রাজ্য মানেই সাজেক। বাংলাদেশের ভ্রমণপিয়াসী মানুষের কাছে যা এখন এক নামে পরিচিত।

বৃহস্পতিবার (১৪ নভেম্বর ) রাত ১০ ঘটিকার সময় ভ্রমণ পিপাসু শিক্ষক, শিক্ষার্থীরা রাঙামাটি জেলার বাঘাইছড়ি উপজেলায় অবস্থিত সাজেক ভ্যালির উদ্দেশ্যে রওয়ানা করেন।

১৪ তারিখ রাত ১০ টার সময় ক্যাম্পাস থেকে তিনটি বাসে করে রওনা দিয়ে ১৫ তারিখ খুব ভোরের দিকে খাগড়াছড়ি শহরে গিয়ে পৌছায় । খাগড়াছড়ি থেকে ঠিক সকাল ৮টায় ১০টি চাঁন্দের গাড়ী করে রওনা দিয়ে গানে আর নাচে প্রায় সাড়ে তিন ঘণ্টার জার্নি শেষে সাজেক পৌছায় ।

শিক্ষার্থীদের এক এক পরিবেশনায় নিস্তব্ধ হয়ে যায় পুরো সাজেকের রাস্তা এবং গানের তালে তালে সবাই নাচ আর কোরাসে মেতে উঠে।

সবুজে মোড়ানো প্রকৃতির মাঝে আঁকাবাঁকা সর্পিল পথ বেয়ে দুঃসাহসিক এই ভ্রমণ যেখানে ফুরাবে, সেটাই সাজেকের মূল কেন্দ্র। নাম রুইলুইপাড়া। পথের দুপাশে লাল-সবুজ রঙের বাড়ি। কাছে-দূরের সব পাহাড়ের ভাঁজে ভাঁজে মেঘ জমে আছে। বেশি উঁচু পাহাড়গুলো অবশ্য সবই সীমান্তের ওপারে। তারা যখন সেখানে পৌঁছালো , সোনালী আলোয় ভেসে যাচ্ছিল পুরো উপত্যকা। আর সন্ধ্যার সময় , সূর্যটা নিচে নেমে যাচ্ছে। সাজেকের প্রতিটা ক্ষণেরই আলাদা রূপ। সাজেকের ভোরবেলার দৃশ্য যে দেখেনি সে কল্পনাই করতে পারবে না সাজেক ভ্যালি কি রকম। আপনি যখন সকাল বেলা হেলিপ্যাডের উপরে গিয়ে সূর্য উদয় দেখবেন মনে হবে সূর্যটি হঠাত্ মেঘ ভেদ করে বেরিয়ে আসছে।

এ ছাড়াও বিভিন্ন দর্শনীয় স্থান পরিদর্শন করে সবাই- হেলিপ্যাড, রুইলুই পাড়া , দীঘিনালা বনবিহার ,কংলাক পাড়া, আলুটিলা রহস্যময়গুহা , খাগড়াছড়ি শহর এবং ঝুলন্ত ব্রীজ।

পিবিএ/জেডআই

আরও পড়ুন...