আদালত থেকে দুই জঙ্গি ছিনতাই: আগাম গোয়েন্দা তথ্য না থাকাকে ব্যর্থতা দেখছে: র‌্যাব

আদালত প্রাঙ্গণ থেকে দুই জঙ্গি ছিনতাই বা পালিয়ে যাওয়ার ঘটনায় অবশ্যই আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী দায় এড়াতে পারি না বলে উল্লেখ করেছেন র‌্যাব সদর দপ্তরের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইং পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন।

তিনি বলেছেন,যদি আগাম গোয়েন্দা তথ্য থাকতো তাহলে এই ঘটনায় আমাদের প্রস্তুতি থাকতো। পূর্ব প্রস্তুতি থাকলে পদক্ষেপ নেয়া সহজ হতো, তাহলে জঙ্গি ছিনতাইয়ের ঘটনা রোধ করতে পারতাম। এজন্য আমরা আইনশৃঙ্খলা বাহিনী দায় এড়াতে পারি না।

সোমবার(৫ ডিসেম্বর) দুপুরে রাজধানীর কারওয়ান বাজার র‌্যাব মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের করা এক প্রশ্নের জবাবে একথা বলেন তিনি।

আদালত চত্বর থেকে দুই জঙ্গি ছিনতাইয়ের ঘটনা সম্পর্কে দেশবাসী জানতে চায়। জঙ্গি ছিনতাইয়ের ঘটনায় আগাম গোয়েন্দা তথ্য ছিল কিনা? আদালত প্রাঙ্গণ থেকে জঙ্গি ছিনতাইয়ের ঘটনায় দায় এড়ানো যায়? ছিনতাই হওয়া জঙ্গিরা কোথায়? এমন প্রশ্নের উত্তরে কমান্ডার মঈন বলেন, আদালত প্রাঙ্গণ থেকে ছিনতাই হওয়া দুই জঙ্গিকে পুনরায় গ্রেপ্তার র‌্যাবসহ অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কাজ করছে। যারা আদালত প্রাঙ্গন থেকে পালিয়েছে তাদের পূর্বের অপরাধ কার্যক্রম, তাদের বিচরণ, সিসিটিভি বিশ্লেষণসহ সার্বিক দিক মূল্যায়ণ করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, আদালত প্রাঙ্গণ থেকে দুই জঙ্গি ছিনতাই বা পালিয়ে যাওয়ার ঘটনায় অবশ্যই আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী হিসেবে আমরা দায় এড়াতে পারি না। যদি পূর্বে গোয়েন্দা তথ্য থাকতো তাহলে এই ঘটনায় আমাদের প্রস্তুতি থাকতো। পূর্ব প্রস্তুতি থাকলে পদক্ষেপ নেয়া সহজ হতো, আমরা জঙ্গি ছিনতাইয়ের ঘটনা রোধ করতে পারতাম। এজন্য আমরা আইনশৃঙ্খলা বাহিনী দায় এড়াতে পারি না।

এ ধরনের ঘটনারোধে সবারই সমন্বিত উদ্যোগ প্রয়োজন উল্লেখ করে কমান্ডার মঈন বলেন, আমরা মনে করি, কারাগার নিরাপত্তায় নিয়োজিত বিভাগ, গোয়েন্দাসহ সকলের পক্ষ থেকে যদি সমন্বিত উদ্যোগ নেয়া হয়তো এমন ঘটনা ঘটতো না। ২০১৪ সালে এমন একটি ঘটনা ঘটেছিল। আমাদের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর এক সদস্য নিহত হয়েছিল। তারপর অনেকদিন পর এমন একটি ঘটনা ঘটলো।

আমরা আত্মতুষ্টিতে ভুগছি না উল্লেখ করে কমান্ডার মঈন বলেন, আমরা সবসময় নজরদারি রাখছি। আমরা আত্মতুষ্টিতে ভুগছি না। এমন না যে, এমন ঘটনায় আমরা শতভাগ ফুলফিল করে কাজ করতে পেরেছি। দুই জঙ্গি পালিয়ে যাবার ক্ষেত্রে অবশ্যই আমাদের দায়বদ্ধতা রয়েছে। একইভাবে তাদের আইনের আওতায় নিয়ে আসতে র‌্যাবসহ অন্যান্য সকল আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর কাজ করে যাচ্ছে।

পালিয়ে যাওয়া দুই জঙ্গি কোথায় দেশে নাকি দেশের বাইরে? জানতে চাইলে র‌্যাব মুখপাত্র বলেন, এই মূহুর্তে এটা বলার অবকাশ রাখছে না। আমরা কাজ করছি। আমরা তাদের পালানো, বিচরণ, সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহসহ তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় কাজ করে যাচ্ছি।

আরও পড়ুন...