ইউপিডিএফ‘র সংগঠক মাইকেল চাকমা নিখোঁজ

পিবিএ,রাঙ্গামাটি: নিখোঁজ’ হলেন ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) এর অন্যতম সংগঠক মাইকেল চাকমা। সোমবার (১৫ এপ্রিল) দুপুরে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে ইউপিডিএফের সহযোগী সংগঠন গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের সভাপতি অংগ্য মারমা, শ্রমজীবী ফ্রন্টের (ইউডব্লিউডিএফ) সভাপতি সচিব চাকমা, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের সভাপতি বিপুল চাকমা ও হিল উইমেন্স ফেডারেশনের সভানেত্রী নিরূপা চাকমা এ অভিযোগ করেন।

বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়েছে,সাংগঠনিক কাজ শেষে গত ৯ এপ্রিল বিকালে ঢাকার উদ্দেশে রওনা হওয়ার পর থেকেই ইউপিডিএফের অন্যতম সংগঠক মাইকেল চাকমা ‘নিখোঁজ’ রয়েছেন। এরপর থেকে তার কোন ‘হদিস পাওয়া যাচ্ছে না’ দাবি করে তাকে ‘অপহরণের’ অভিযোগ তুলেছে ইউপিডিএফ সমর্থিত চার সংগঠন। বিবৃতিতে অভিযোগ করে আরও উল্লেখ করা হয়েছে, ‘পাহাড়িদের ঐতিহ্যবাহী উৎসব বৈসাবি (বেসুক-সাংগ্রাই-বিজু) ও রানা প্লাজা ধ্বংসযজ্ঞের বার্ষিকী উপলক্ষে কর্মসূচি গ্রহণের জন্য মাইকেল চাকমা শ্রমিক এলাকায় সাংগঠনিক সফরে যান। কাঁচপুর এলাকায় সাংগঠনিক কাজ শেষে গত ৯ এপ্রিল বিকালে ঢাকায় কর্মসূচি বাস্তবায়ন পর্যালোচনা সভায় যোগদানের উদ্দেশে রওনা হন। এরপর থেকে তার কোন হদিস পাওয়া যাচ্ছে না। তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোনটিও বন্ধ রয়েছে। ‘নিখোঁজ’ মাইকেল চাকমা পাহাড়ে পূর্ণ সায়ত্বশাসনের দাবিতে আন্দোলনরত প্রসিত খীসা নেতৃত্বাধীন ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টের (ইউপিডিএফ) অন্যতম সংগঠক ও শ্রমজীবী ফ্রন্টের (ইউডব্লিউডিএফ) কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক। তাকে নিয়ে তার পরিবার ও সংগঠনের নেতা-কর্মীরা গভীর উদ্বেগ ও উৎকণ্ঠার মধ্যে রয়েছেন।

পার্বত্য চট্টগ্রাম ও দেশের নিপীড়িত-নির্যাতিত ও প্রমজীবী মানুষের ন্যায়সঙ্গত আন্দোলনকে ধ্বংস করে দেয়ার রাষ্ট্রীয় পরিকল্পনার অংশ হিসেবেই আন্দোলনের অন্যতম সংগঠক মাইকেল চাকমাকে তুলে নেওয়া হয়েছে বলে নেতাকর্মীরা অভিযোগ করেন বিবৃতিতে। বিবৃতিতে চার সংগঠনের নেতাকর্মীরা সরকারকে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন,এ ঘটনার দায় কিছুতেই এড়াতে পারে না সরকার। ‘অপহৃত’ মাইকেল চাকমার কোন কিছু হলে সরকারকে দায়-দায়িত্ব বহন করতে হবে।

পিবিএ/এনএ/হক

আরও পড়ুন...