উইন্ডিজের হারে আগামী বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভ নিশ্চিত বাংলাদেশের

বিষয়টা আগেই পরিষ্কার ছিল। ওয়েস্ট ইন্ডিজের একটা হারই বাংলাদেশকে তুলে দিতে পারত পরের বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভে। অস্ট্রেলিয়ার কাছে ওয়েস্ট ইন্ডিজের হারে সেটাই হয়েছে। টানা তিন বিশ্বকাপে ‘প্রাথমিক পর্ব’ খেলার পর অবশেষে অস্ট্রেলিয়া বিশ্বকাপে সরাসরি মূল পর্বে খেলতে পারবে টাইগাররা।

আবুধাবিতে নিজেদের সর্বশেষ ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার কাছে পাত্তাই পায়নি ক্যারিবীয়রা। কাইরন পোলার্ডের দল হেরেছে ৮ উইকেটের ব্যবধানে। তাতেই নিশ্চিত হয়ে গেছে বিষয়টা। বাংলাদেশ চলে গেছে অস্ট্রেলিয়া বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভে। আর ওয়েস্ট ইন্ডিজ টানা দুই হারের কবলে পড়ে প্রথমবারের মতো প্রাথমিক পর্বে খেলবে আগামী বিশ্বকাপে।

আজ বিকেলে আবুধাবিতে যখন অস্ট্রেলিয়ার মুখোমুখি হয় উইন্ডিজ, তখনও দলটি বাংলাদেশ থেকে এগিয়ে ছিল র‍্যাঙ্কিংয়ে। দুই দলের পয়েন্ট ২৩৪ হলেও ভগ্নাংশের ব্যবধানে এগিয়ে ছিল উইন্ডিজ। তবে অজিদের কাছে হারের ফলে ২৩৩ পয়েন্ট নিয়ে তারা নেমে গেছে একধাপ, বর্তমানে তারা আছে নবম স্থানে। আর বাংলাদেশ চলে এসেছে র‍্যাঙ্কিংয়ের অষ্টম স্থানে।

ক্যারিবিয়ানদের এই হার বাংলাদেশ তো বটেই, আফগানিস্তানকেও তুলে দিয়েছে পরের বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভে। বর্তমানে মোহাম্মদ নবীদের পয়েন্ট ২৩৫। শেষ ম্যাচে যদি তারা নিউজিল্যান্ডের কাছে হেরেও বসে, তাহলে তাদের পয়েন্ট হবে ২৩৩, উইন্ডিজের চেয়ে ভগ্নাংশের ব্যবধানে এগিয়ে বিশ্বকাপের মূল পর্বে খেলবে দলটি।

চলতি বিশ্বকাপ আয়োজনের এক বছরের মাথাতেই আরও একটা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ মাঠে গড়াবে। এ কারণেই বিশ্বকাপের দল বাছাইয়ের জন্য নতুন প্রক্রিয়া ঠিক করে বিশ্বক্রিকেটের কর্তা আইসিসি। নতুন নিয়ম অনুসারে চলতি বিশ্বকাপের ফাইনালিস্ট দুই দল, আর র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ ছয় দল খেলবে পরের বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভে। আর চলমান বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভে আসা দলগুলোর মধ্যে যারা শীর্ষ আটে (২+৬) নেই, তারা খেলবে আগামী বিশ্বকাপের প্রাথমিক পর্বে।

সেই নিয়মের বলেই বাংলাদেশ খেলছে আগামী বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভ। সঙ্গী হিসেবে পাচ্ছে ইংল্যান্ড, পাকিস্তান, ভারত, অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা, ও আফগানিস্তানকে।

আরও পড়ুন...