উত্তরায় ডাচ্‌-বাংলা এটিএম বুথে ব্যবসায়ীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা

পিবিএ,ঢাকা: রাজধানীর উত্তরায় ডাচ্‌-বাংলা ব্যাংকের এটিএম বুথে মো. শরিফ উল্লাহ (৪৪) নামের এক ব্যবসায়ীকে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় হত্যাকারী আব্দুস সামাদকে (৩৮) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত পৌনে ১টার দিকে উত্তরা ১১ নম্বর সেক্টরের সোনারগাঁও জনপথ রোডের ডাচ্‌-বাংলা ব্যাংকের এটিএম বুথে এই হত্যাকাণ্ড ঘটে। পরে আশপাশের লোকজন ওই ছিনতাইকারীকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে।

পরিবার সূত্রে জানা গেছে, নিহত ওই ব্যবসায়ী হলেন লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলার মধুপুর গ্রামের মৃত মোহাব্বত আলীর ছেলে। তিনি উত্তরা ১২ নম্বর সেক্টরের ৬ /সি সড়কের ২৪ নম্বর প্লটে টাইলসের ব্যবসা করতেন। তাঁর প্রতিষ্ঠানের নাম জাকিয়া টাইলস গ্যালারি অ্যান্ড স্যানিটারি। তিনি গাজীপুর জেলার টঙ্গী পশ্চিম থানার আওতাধীন দেওড়া এলাকার ১৮৯ শাহজালাল রোডে স্ত্রী রিয়ানা পারভিন পলি এবং দুই ছেলে শাহ নেওয়াজ স্বাধীন (১২) ও সোয়েব মাহমুদকে (৫) নিয়ে বসবাস করতেন।

গ্রেপ্তার হওয়া আসামি হলেন নেত্রকোনা জেলার পূর্বধলা উপজেলার বিশকাকলী এলাকার আব্দুল হামিদের ছেলে আব্দুস সামাদ।

সোনারগাঁও জনপথ রোডের পথচারীরা পিবিএ’কে বলেন, ‘ডাচ্‌-বাংলা ব্যাংকের এটিএম বুথের মধ্যে এক যুবক ছুরিকাঘাত করেন ওই ব্যবসায়ীকে। পরে তাঁকে দৌড়ে ধরে পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়। অন্যদিকে আহত ব্যক্তিকে দ্রুত উদ্ধার করে পুলিশ উত্তরা আধুনিক মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।’

নিহত ব্যবসায়ীর ভাতিজা নুরুল ইসলাম পিবিএ’কে বলেন, ‘স্যানিটারি দোকান বন্ধ করে রাতে বাসায় ফেরার পথে এই ছুরিকাঘাতের ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশের মাধ্যমে সংবাদ পেয়ে আমরা হাসপাতালে ছুটে এসে তাঁকে মৃত অবস্থায় পাই।’

উত্তরা পশ্চিম থানার পুলিশ পিবিএ’কে বলেন, ‘সুরতহাল রিপোর্টে মরদেহের ডান পাশের কানের নিচে গলায় ধারালো অস্ত্রের বড় জখম এবং বাঁ পাশের কানের নিচে দুটি ক্ষতচিহ্ন রয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, ছুরিকাঘাতে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের কারণে তিনি মারা গেছেন।’

একই থানার পরিদর্শক (অপারেশন) পার্থ প্রতিম ব্রহ্মচারী পিবিএ’কে বলেন, ‘হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সেই সঙ্গে হত্যায় ব্যবহৃত ধারালো অস্ত্র জব্দ করা হয়েছে। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হবে।’

অন্যদিকে পরিদর্শক (তদন্ত) মোহাম্মদ ইয়াসিন গাজী পিবিএ’কে বলেন, ‘গ্রেপ্তার হওয়া আব্দুস সামাদ একজন ছিনতাইকারী। ব্যাংক থেকে তোলা টাকা ছিনতাইয়ের জন্য ব্যবসায়ী শরিফ উল্লাহকে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করে। এ ঘটনায় একটি হত্যা মামলা হয়েছে।’

আরও পড়ুন...