কক্সবাজারের ইয়াবা ডন খোকনের উত্থান

পিবিএ,কক্সবাজার: পানের দোকানী খোকন ইয়াবার আশির্বাদে মাত্র কয়েক বছরে জিরো থেকে এখন কোটিপতি । লিংকরোড় বিসিক মহুরীপাড়ার মনোয়ার আহমদের পুত্র দিদারুল আলম খোকন। অভাব অনটনের সংসারে একমাত্র অবলম্বন ছিল বিসিকের ভিতরে একটি পাল্কী পানের দোকান। ৭-৮ বছর আগে ওই দোকানে আয় রোজগার কমে যাওয়ায় সাগর পথে মালয়েশিয়া পাড়ি জমায়। মালয়েশিয়ায় অবস্থান করে কক্সবাজারসহ দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে রোহিঙ্গা নাগরিকসহ শতশত লোক মালয়েশিয়ায় সাগর পথে নিয়ে যায় এ খোকন।

তার নেতৃত্বে মালয়েশিয়া থাইল্যান্ড ও বাংলাদেশে একাধিক মানবপাচারের সিন্ডিকেট গড়ে তোলা হয়। অল্প কিছুদিনের মধ্যে পান দোকানদারী খোকন অর্ধ কোটি টাকার মালিক বনে যায়। এসময় বাংলাদেশ ও মালয়েশিয়া সরকার মানবপাচারকারীদের বিরুদ্ধে শক্ত অবস্থান নিলে খোকন মালয়েশিয়া থেকে বাংলাদেশ ফেরত আসে। দেশে ফিরে এসে ইয়াবা ব্যবসা ও মানবপাচার সমানতালে চালিয়ে যাচ্ছে। পাশাপাশি জমি দখল সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজির মতো জঘন্য ঘটনার সাথে জড়িয়ে পড়ে এ খোকন। বর্তমানে সে বিসিক এলাকার সাধুবেশী অঘোষিত ইয়াবা সম্রাট।

তার নিয়োজিত কয়েক ডজন নারী ও পুরুষ স্থল ও নৌপথে বর্তমানে ইয়াবা পাচার চালিয়ে যাচ্ছে বলে স্থানীয় একাধিক নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে। তার এসব অপকর্ম এখনো পুরোপুরি প্রশাসনের নজরদারিতে আসেনি বলে সে বার বার পার পেয়ে যাচ্ছে।

পিবিএ/তাহজীবুল আনাম/এমআর

আরও পড়ুন...