করোনায় প্রাণ গেল দুই নারী ও দুই পুরুষের, শনাক্ত ৬৫

রাজন্য রুহানি,জামালপুর: জামালপুরে করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারাল দুই জন নারী ও দুই জন পুরুষ। গত ২৪ ঘন্টায় হোম আইসোলেশনে থেকে দুই জন, জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে একজন ও ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে আরেকজনের মৃত্যু হয়। এ নিয়ে জেলায় ৬৪ জনের মৃত্যু হলো।

অপরদিকে, একদিনে ২৭৩ টি নমুনা পরীক্ষায় করোনা শনাক্ত হয়েছে আরও ৬৫ জনের। পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ২৩ দশমিক ৮০ শতাংশ। শনাক্তের বিপরীতে জেলায় মোট সুস্থ হয়েছে ২৬৪৯ জন। সর্বশেষ হোম আইসোলেশন থেকে জামালপুর সদর উপজেলায় ২৫ জন ও সরিষাবাড়ী উপজেলায় ৫ জনসহ সুস্থ হয়েছে ৩০ জন করোনা রোগী। জেলায় এ পর্যন্ত ২৭৩১৯ টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর বিপরীতে শনাক্ত হয়েছে ৩৩৩৩ জন। মোট শনাক্তের হার ১২ দশমিক ২০ শতাংশ।

করোনায় জামালপুর পৌরসভার কাচারীপাড়া এলাকার শাহজাহান আলী (৭০), নয়াপাড়া এলাকার শেফালি বেগম (৫০), দেওয়ানগঞ্জের কৈবধ্যেপাড়া এলাকার রাখি দাস (৪৫) ও বকশিগঞ্জের বাট্টাজোড় এলাকার আব্দুল কাদের (৬০) নামে সর্বশেষ চারজনের মৃত্যু হয়েছে।

শাহাজান আলীর ৬ জুলাই নমুনা নেওয়া হয়। ৮ জুলাই তার করোনা ধরা পড়ে। ওইদিন রাতেই হোম আইসোলেশনে মৃত্যু হয় তার।

শেফালি বেগমের নমুনা নেওয়া হয় ৬ জুলাই। পরদিন তার করোনা শনাক্ত হয়। তিনি জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন ছিলেন। বিকেলে সেখানেই তিনি মারা যান।

৬ জুলাই নমুনা দেন রাখি দাস। তার করোনা শনাক্ত হয় ৮ জুলাই। হোম আইসোলেশনে ওইদিন দুপুরে মারা যান তিনি।

আব্দুল কাদেরের নমুনা ২৯ জুন সংগ্রহ করা হয়। পরদিন করোনা শনাক্ত হলে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয় তাকে। অবস্থার অবনতি হলে নেওয়া হয় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। ৬ জুলাই সেখানেই তিনি মারা যান।

অপরদিকে, গত ২৪ ঘন্টায় জামালপুর সদর উপজেলায় ২৯ জন, মেলান্দহ উপজেলায় ৩ জন, মাদারগঞ্জ উপজেলায় ৩ জন, ইসলামপুর উপজেলায় ৪ জন, সরিষাবাড়ী উপজেলায় ১৩ জন, দেওয়ানগঞ্জ উপজেলায় ৬ জন ও বকশীগঞ্জ উপজেলায় ৭ জনের কোভিড-১৯ সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে।

শুক্রবার (৯ জুলাই) সকালে জেলার সিভিল সার্জন ডা. প্রণয় কান্তি দাস এসব তথ্য দেন।

তিনি আরও জানান, সর্বশেষ প্রতিবেদনে জামালপুর শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাবে ১৬৪ টি নমুনা পরীক্ষায় ৪১ জন, ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাবে জামালপুর জেলার স্থায়ী নিবাসীর ১২ টি নমুনা পরীক্ষায় ২ জন এবং জেলা/উপজেলা পর্যায়ে জঅ টেস্টে ৯৭ টি নমুনা পরীক্ষায় ২২ জন অর্থাৎ মোট ২৭৩ টি নমুনা পরীক্ষায় আরও মোট ৬৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

সর্বশেষ এলাকা ভিত্তিক শনাক্তঃ

জামালপুর সদর উপজেলার জেনারেল হাসপাতাল, কাছারীপাড়া ৩ জন, কেন্দুয়া ৪ জন, মোসলেমাবাদ, নরুন্দী, মুকুন্দবাড়ী ৪ জন, মির্ধাপাড়া ২ জন, জামতলী, বোষপাড়া, শাহপুর, পাথালিয়া ২ জন, নয়াপাড়া ৩ জন, পুলিশ লাইন, তমালতলা, ফায়ার সার্ভিস, স্টেশন রোড ও কটুরিয়া।

মেলান্দহ উপজেলার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, পচাঁবহলা ও নয়ানগর।

মাদারগঞ্জ উপজেলার চরভাটিয়ানী, চাঁদপুর ও গুনারীতলা।

ইসলামপুর উপজেলার ভাঙ্গুরা, জাঙ্গালিয়া ২ জন ও ইসলামপুর।

সরিষাবাড়ী উপজেলার সরিষাবাড়ী, শটগ্রাম, যমুনা সার কারখানা ২ জন, পিংনা, চক হাটবাড়ী, তারাকান্দি ২ জন, মহাদান, জগন্নাথগঞ্জ ঘাট, চর রুখলী, শালগ্রাম ও ইস্পাহানী।

দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার দেওয়ানগঞ্জ, কৈবধ্যেপাড়া, দেওয়ানগঞ্জ বাজার, কাছারীপাড়া ও কলেজ রোড ২ জন।

বকশীগঞ্জ উপজেলার ইউএনও অফিস, কাকিলাকৈর, বাট্টাজোড় ২ জন, কাউনিয়ার চর, ভেড়ারচর ও তিনানীর পাড়া।

আরও পড়ুন...