কুড়িগ্রামে হত্যা মামলায় একজনের মৃত্যুদণ্ড

পিবিএ,রাজারহাট (কুড়িগ্রাম): জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে কুড়িগ্রামের রৌমারীতে লাইলী বেগম (৪৫) নামে এক গৃহবধূকে হত্যার দায়ে আব্দুস ছাত্তার নামে একজনকে দোষী সাবস্ত করে কুড়িগ্রাম জেলা ও দায়রা জজ আদালত মৃত্যুদণ্ডের আদেশ প্রদান করেছে। (২৯ সেপ্টেম্বর) মঙ্গলবার দুপুরে জেলা ও দায়রা জজ মো: আব্দুল মান্নান এই রায় ঘোষণা করেন। এ মামলায় অপর ৬ আসামীকে মামলার দায় থেকে বে-কসুর খালাসের আদেশ দেন আদালত।

মামলার বিবরণে জানা যায়, কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলার যাদুরচর ইউনিয়নের বাইমমারী গ্রামে ক্রয় সূত্রে ৫৮শতক জমি ১৮বছর ধরে মালিকানা ভোগ করে আসছিলেন ওই গ্রামের মৃত: বন্দে আলী দেওয়ানীর পূত্র সামছুল হক (৫৫)। ২০১০ সালের ৮ নভেম্বর প্রতিবেশী মৃত: বাহেজ হাজীর পূত্র আব্দুস ছালাম (৬০) জমির মালিকানা দাবি করে সাথে লোকজনকে নিয়ে এসে পাকা ধান কেটে নিয়ে যায়। এসময় শ্যালো মেশিন নিতে গেলে সামছুল হকের স্ত্রী লাইলী বেগম বাঁধা দিতে গেলে আসামী আব্দুস ছাত্তার সাবল দিয়ে তার মাথায় আঘাত করলে ঘটনাস্থলেই সে লুটিয়ে পড়ে। আশপাশের লোকজন তাকে রৌমারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়ার ১০ মিনিট পরেই তার মৃত্যু হয়।

এ ব্যাপারে নিহতের স্বামী সামছুল হক রৌমারী থানায় ১৪জনের নাম উল্লেখ করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। দীর্ঘ শুনানির পর সাক্ষী ও প্রমানের ভিত্তিতে মঙ্গলবার আদালত আসামী আব্দুস ছাত্তারকে মৃত্যুদন্ডের আদেশ পড়ে শোনান। অপর ৬ আসামীকে মামলার দায় থেকে অব্যাহতির আদেশ প্রদান করেন।

রাস্ট্র পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট এস এম আব্রাহাম লিংকন ও আসামী পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট মো: আমির আলী। রাস্ট্র পক্ষে মামলা পরিচালনাকারী ও পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট এস এম আব্রাহাম লিংকন জানান, আমরা রাস্ট্রপক্ষ এই রায়ে সন্তুষ্ট। এই রায় সমাজে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে অনেক কার্যকরী ভূমিকা রাখবে। আর অপরাধীরা এ ধরণের ঘৃণ্য অপরাধ থেকে বিরত থাকবে।

পিবিএ/প্রহলাদ মন্ডল সৈকত/এমআর

আরও পড়ুন...