‘ক্ষমতা দখলে রাখতে সরকার পুরোনো খেলা শুরু করেছে’

শেষ রক্ষা পেতে সরকার আবারও পুরোনো খেলা শুরু করেছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তিনি বলেছেন, আওয়ামী জালেম সরকারের বিরুদ্ধে জনগণ ফুঁসে উঠেছে। তাদের সব অন্যায়, অবিচার, অপকর্মের বিচার দেশের জনগণ করবেই। যারা এই নিশিরাতের সরকারকে সহযোগিতা করছেন, তারা এসব বন্ধ করুন। জনগণের পায়ের আওয়াজ শুনুন।

বুধবার (৩০ নভেম্বর) দুপুরে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

রিজভী বলেন, এই নিশিরাতের মাফিয়া সরকার পতনের শেষ প্রান্তে পৌঁছেছে। ১০ ডিসেম্বর বিএনপির কর্মসূচি নিয়ে ‘পোড়া মাটি নীতি’ অবলম্বন করেছে। আওয়ামী ফ্যাসিবাদ টিকিয়ে রাখার জন্য বিরোধী দলীয় কর্মসূচিকে বানচাল করতে গ্রহণ করেছে নানা উদ্যোগ। বিএনপির নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করা হচ্ছে হত্যা-নির্যাতন ও মিথ্যা মামলা দিয়ে।

বিএনপির এই মুখপাত্র বলেন, নারায়ণগঞ্জে পুলিশের মামলায় জাপানে থাকা প্রবাসী ছাত্রদল নেতা আসামি। সেই পুরোনো কায়দায় সারাদেশে হিড়িক চলছে আবারও গায়েবী মামলার।

রিজভী অভিযোগ করে বলেন, গত রোববার সাবেক ছাত্রদল নেতা ও ২০১৮ সালের শরীয়তপুর-৩ আসনের বিএনপি মনোনীত ধানের শীষের প্রার্থী মিয়া নুরুদ্দীন অপুকে দুদুকের একটি মামলায় ডান্ডাবেড়ি পরিয়ে আদালতে হাজির করা হয়। তিনি প্রচণ্ড অসুস্থ। বিএনপির একজন সাবেক সংসদ সদস্য প্রার্থীকে এমন করা নজীরবিহীন। কোনো সভ্য সমাজে এ ধরনের জুলুম-নির্যাতন-ডান্ডাবেড়ি পরানোর মতো ন্যাক্কারজনক কাজ হতে পারে না।

রিজভী অবিলম্বে মিয়া নুর উদ্দিন অপুর মুক্তি প্রদান এবং ডান্ডাবেড়ি পরিয়ে হাতে হ্যান্ডকাপ দিয়ে আদালতে তোলার জন্য দায়ী কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের আহ্বান জানাচ্ছি।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির যুববিষয়ক সম্পাদক মীর নেওয়াজ আলী নেওয়াজ, সহ-স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. রফিকুল ইসলাম, নির্বাহী কমিটির সদস্য তারিকুল ইসলাম তেনজিং প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন...