রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

গেস্টরুমে বসা নিয়ে রাবি ছাত্রলীগ নেতাদের মধ্যে সংঘর্ষ, আহত ৪ (ভিডিওসহ)

ছাত্রলীগ
রাবি ছাত্রলীগ নেতাদের মধ্যে সংঘর্ষ

পিবিএ ,রাবি: আবাসিক হলের অতিথি কক্ষে বসা নিয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ছাত্রলীগের দুই পক্ষের মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় চারজন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। শুক্রবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মাদার বখ্শ হলে এই ঘটনা ঘটে। আহতরা বিশ^বিদ্যালয় চিকিৎসা কেন্দ্রে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন।

আহতরা হলেন দর্শন বিভাগের শিক্ষার্থী একরাম হোসেন রিমন, মারুফ পারভেজ, জসিম উদ্দিন, ক্রীড়াবিজ্ঞান বিভাগের লিমন। মারধরের শিকার শিক্ষার্থীরা কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য সাকিবুল হাসান বাকির অনুসারী। আর মারধরকারীরা রাবি শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ রুনুর অনুসারী বলে জানা গেছে।

হলসূত্রে জানা গেছে, দুপুরে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য সাকিবুল হাসান বাকির অনুসারী ও স্পোর্টস সায়েন্স বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী লিমন হোসেন তার দুই বান্ধবীকে নিয়ে হলের গেস্ট রুমে আসেন। এসময় সেখানে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি গোলাম কিবরিয়ার অনুসারী ও সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী কামরুল ইসলাম তার এক বন্ধুকে নিয়ে বসে ছিলেন।

এসময় লিমন তাকে গেস্ট রুমে জায়গা করে দিতে বললে কামরুল লিমনকে মারধর করে। পরে লিমন এ ঘটনার তার কয়েকজন বন্ধুকে ডেকে কামরুলের কক্ষে গিয়ে তালাবদ্ধ দেখতে পেয়ে জানালা ভাঙচুর করে। এরপরে হলের ফটকের সামনে রাবি শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি গোলাম কিবরিয়া ও সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ রুনুর অনুসারীরা সাকিবুল হাসানের কর্মীদের ওপর হামলা চালায়।

কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য সাকিবুল হাসান বাকি বলেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে গত সম্মেলনের পর থেকেই আমার সঙ্গে যারা চলাফেরা করত, তাদেরকে নানা ধরনের অত্যাচারের মধ্য দিয়ে যেতে হচ্ছে। এমনকি আড়াই বছর ধরে আমাদেরকে কোন পদ দেয়নি। বরং আমার কর্মীদেরকে মারধর করেছে। তারা হলে থেকে যে ঠিকমতো পড়ালেখা চালিয়ে যাবে সেই অবস্থাও নেই।

বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ রুনু বলেন, এখানে কোন দল বা পক্ষের কাউকে মারধর করা হয়নি। পরিস্থিতি এখন শান্ত।

মাদারবখশ হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক মো. আব্দুল আলীম বলেন, জানতে পারলাম দুজন ছেলে মারামারি করেছে। পরে প্রক্টর ও হলের অন্যদের বিষয়টি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করতে বলি। ঢাকা থেকে ফিরে তদন্ত করে তাদের বিরুদ্ধে হল থেকে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক লুৎফর রহমান বলেন, এটার সমাধান করার চেষ্টা চলছে। এখন পরিস্থিতি আমাদের নিয়ন্ত্রণে। কেউ-ই অনাকাক্সিক্ষত পরিস্থিরি সৃষ্টি করতে পারবে না।

পিবিএ/ আকরাম হোসাইন/জেডআই

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মারামারি

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মারামারি

Posted by Amader Shomoy on Friday, September 13, 2019


আরও পড়ুন...

ঘরে বসেই নিজের বিকাশ একাউন্ট খুলুন