চাঁদা না পেয়ে যুবককে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে

মো: আল মামুন, মুন্সীগঞ্জ: মুন্সীগঞ্জে চাঁদা না পেয়ে নয়ন মিজি(৩৩) নামের এক যুবককে মারধর ও কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় কয়েকজন ছাত্রলীগ নেতার বিরোদ্ধে। বুধবার বিকালে সদর উপজেলার কাজী কসবা এলাকায় এ মারধরে ঘটনা ঘটে।
আজ বৃহস্পতিবার সকাল ১১টার দিকে ঢাকার জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় নয়নের মৃত্যু হয়। নিহত নয়ন স্থানীয় রামপাল ইউনিয়নের উত্তর কাজী কসবা এলাকার মৃত বাতেন মিজির ছেলে।

নিহতের স্বজন ও স্থানীয় সূত্রে জানাযায়, সম্প্রতি নয়ন কাজী কসবা এলাকায় হাঁস-মুরগির একটি খামার তৈরি করলে রামপাল ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রান্ত শেখ ও ছাত্রলীগ নেতা শোভন তালুকদার তার কাছে চাঁদা চায়। তবে নয়ন চাঁদা না দেওয়ায় এনিয়ে নয়নের সাথে ওই ছাত্রলীগের নেতাদের সাথে তার বিরোধ চলছিলো। ওই ঘটনার জেরে বুধবার বিকালে কাজী কসবা এলাকা একটি পেপার মিলের সামনে নয়নকে পেয়ে ছাত্রলীগের প্রান্ত শেখ, নেতা শোভন, চঞ্চল, রনি, কাঞ্চন সহ ৭-৮জন ধরে রড ও দেশীয় অস্ত্র দিয়ে মারধর করতে থাকে।

খবর পেয়ে নয়নের মা রাশিদা বেগম ও স্ত্রী ঘটনাস্থলে ছুটে গেলে তাদের সামনেই চাপাতি দিয়ে নয়নকে কুপিয়ে গুরুত্বর জখম ও আহত করে। এসময় নয়নকে বাচঁতে চিৎকার করলে তার স্ত্রীকেও মারধর করে প্রান্ত-শোভন। পরে মারধরকারীরা নয়নকে মোটরসাইকেলে বেঁধে টেনে হেঁচড়ে নিয়ে রাস্তার অদূরে ফেলে যায়। সেখান থেকে মূমুর্ষ আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে প্রথমে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা অবস্থা গুরুত্বর অবস্থায় তাকে ঢাকায় মেডিকেলে প্রেরণ করা হয়। বুধবার রাতে তাকে জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতালে ভর্তি করা হলে বৃহস্পতিবার সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

এদিকে ঘাতক প্রান্ত-শোভন গংদের বিরুদ্ধে এর আগেও ধর্ষণ, কিশোর গ্যাং নিয়ন্তণ সহ বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের অভিযোগ রয়েছে বলে জানান স্থানীরা

এবিষয়ে মুন্সীগঞ্জ অতিরিক্ত পুলিম সুপার (সদর সার্কেল) মিনহাজ আবেদিন বলেন, এঘটনায় প্রথমে মারামারির অভিযোগ ও এখন হত্যা মামলা হয়েছে। এজহারনামীয় ৯জন আসামীর মধ্যে ২জনকে ধরতে আমার সক্ষম হয়েছি। বাকি আসামিদের গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে। কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।

পিবিএ/এমএসএম

আরও পড়ুন...