ছুরিকাঘাতে প্রাক্তন স্ত্রীকে হত্যাচেষ্টা, যুবক আটক

রাজন্য রুহানি,জামালপুর: জামালপুর শহরের তমালতলায় প্রাক্তন স্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিনকে ছুরি দিয়ে এলোপাতাড়ি আঘাত করে মারাত্মক জখম করেছে শাহীন আলম নামে এক যুবক। আহত সাবিনাকে জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

শনিবার (২৮ আগস্ট) বিকেল ৫ টায় ওই যুবক জনবহুল এলাকায় পেছন থেকে গলায় পোচ মেরে এবং পেটে উপর্যুপরি ছুরি চালিয়ে এ হত্যাচেষ্টা চালায়।

হামলাকারী শাহীনকে ঘটনাস্থল থেকে ওই সময়ই আটক করেছে পুলিশ। শাহীন আলম শেরপুর জেলার ঝিনাইগাতি উপজেলার গুরুচরণ এলাকার আব্দুল জলিলের ছেলে। সাবিনা ইয়াসমিন পাশের জোকাকুঁড়া এলাকার সালেহ আহমেদের মেয়ে। তিনি জামালপুর শহরের মুন নার্সিং হোমে নার্সিং বিভাগে অধ্যয়নরত এবং সিটি হাসপাতালে ইন্টার্নি করছেন।

সাবিনা ইয়াসমিনের বান্ধবী সুমি আক্তার জানান, তিন বছর আগে শাহীন ও সাবিনার বিবাহ বিচ্ছেদ হয়। কয়েকদিন ধরে শাহীন তাকে উত্ত্যক্ত করছিল। বিকেলে কর্মস্থল থেকে ফেরার সময় পেছন থেকে এসে ছুরি দিয়ে সাবিনার গলায় পোচ মারে এবং পেটে উপর্যুপরি আঘাত করে শাহীন। এতে সাবিনা মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে স্থানীয়রা।

জামালপুর জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসক আল ইমরান জানান, প্রচুর রক্তক্ষরণের কারনে সাবিনার অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাকে ময়মনসিংহে স্থানান্তর করা হয়েছে।

এ বিষয়ে জামালপুর সদর থানার ওসি মো. রেজাউল ইসলাম খান জানান, প্রকাশ্য দিবালোকে সাবিনাকে ছুরিকাঘাতে হত্যাচেষ্টার পরেই শাহীনকে আটক করা হয়েছে।

 

আরও পড়ুন...