জামালপুরে করোনা সংক্রমণ ভাঙল অতীতের সব রেকর্ড

রাজন্য রুহানি,জামালপুর:জামালপুরে একদিনে ৬০ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। ২০০ টি নমুনা পরীক্ষায় এই সংক্রমণ শনাক্ত হওয়ায় এতদিনের মধ্যে এটিই জেলায় সর্বোচ্চসংখ্যক শনাক্ত। এর আগে গতকালও সর্বোচ্চ শনাক্ত ছিল। পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ৩০ শতাংশ।

নতুন শনাক্ত নিয়ে জেলায় এ পর্যন্ত ৩০৮০ জনের করোনা শনাক্ত হলো। এরমধ্যে ৫৩ জন মারা গেছেন। এছাড়া গত ২৪ ঘন্টায় সুস্থ হয়েছেন ৩৩ জন। সবমিলিয়ে জেলায় ২৪৯৯ জন করোনা রোগী সুস্থ হয়েছেন। জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ সোমবার (৫ জুলাই) সকালে এই তথ্য জানায়।

এদিকে, জামালপুর শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাবে ৮২ টি নমুনা পরীক্ষায় ২১ জন, ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাবে ৫ টি নমুনা পরীক্ষায় ১ জন এবং জেলা/উপজেলা পর্যায়ে ১১৩ টি নমুনা পরীক্ষায় ৩৮ জন অর্থাৎ মোট ২০০ টি নমুনা পরীক্ষায় আরও মোট ৬০ জনের কোভিড-১৯ সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। এরমধ্যে জামালপুর সদর উপজেলায় ২৬ জন, মাদারগঞ্জ উপজেলায় ১৭ জন, সরিষাবাড়ী উপজেলায় ৯ জন ও বকশীগঞ্জ উপজেলায় ৮ জন।

সর্বশেষ এলাকা ভিত্তিক শনাক্তঃ
জামালপুর সদর উপজেলার ডিসি অফিসে ১ জন, শহীদ হিরু সড়কে ২ জন, শাহাপুর ৪ জন, বগাবাইদে ১ জন, নান্দিনায় ৩ জন, মুকুন্দবাড়ীতে ১ জন, নয়াপাড়ায় ২ জন, বকুলতলায় ৪ জন, কলেজ রোডে ১ জন, তেঁতুলিয়ায় ১ জন, ফুলবাড়িয়ায় ১ জন, ইকবালপুরে ২ জন, কাচারীপাড়ায় ২ জন ও জেনারেল হাসপাতালে ১ জন।

মাদারগঞ্জ উপজেলার সদরে ১ জন, জুনাইল পক্ষীমারীতে ১ জন, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ২ জন, মোসলেমাবাদে ৩ জন, ফাজিলপুরে ১ জন, চর পাকেরদহে ২ জন, তারতাপাড়ায় ২ জন, উপজেলা চত্বরে ২ জন, গাবের গ্রামে ১ জন, নিশ্চিন্তপুরে ১ জন ও বালিজুড়ীতে ১ জন।

সরিষাবাড়ী উপজেলার কামরাবাদে ১ জন, সাতপোয়ায় ১ জন, বিল শিমলায় ১ জন, কলেজ এলাকায় ২ জন, যমুনা সার কারখানায় ১ জন, বাড়ইপটলে ১ জন, ডিগ্রীবন্দে ১ জন ও রাম চন্দ্রখালীতে ১ জন।

বকশীগঞ্জ উপজেলার পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে ৫ জন, ফায়ার সার্ভিসে ১ জন, জানকিপুরে ১ জন ও সীমারপাড়ে ১ জন।

এসব তথ্য নিশ্চিত করে জেলা সিভিল সার্জন ডা. প্রণয় কান্তি দাস জানান, এতদিনের মধ্যে গত ২৪ ঘন্টায় সর্বোচ্চসংখ্যক শনাক্ত হয়েছে।
স্বাস্থ্যবিধি না মানায় জেলায় দ্রুত বিস্তার লাভ করছে করোনা সংক্রমণ। লোকজন আরো সতর্ক না হলে অবস্থা ভয়াবহতার দিকে যাবে।

 

আরও পড়ুন...