জামালপুরে পৃথক স্থান থেকে গৃহবধূ ও যুবকের মরদেহ উদ্ধার

রাজন্য রুহানি,জামালপুর: জামালপুরে পৃথক স্থান থেকে দুই মরদেহ উদ্ধার করেছে সদর থানা পুলিশ। পৌরসভার তেঁতুলিয়া গ্রাম থেকে উদ্ধার করা হয় খোরশেদা বেগম (৫৫) নামে এক নারীর এবং সদর উপজেলার রানাগাছা ইউনিয়নের মহেশপুর কালীবাড়ী গ্রাম থেকে জাহিদ (২৫) নামের এক যুবকের মরদেহ।

মঙ্গলবার (১৩ সেপ্টেম্বর) ভোরে পৌরসভার ১২নং ওয়ার্ডের তেতুলিয়া গ্রামে নিজ বাড়ি থেকে খোরশেদা বেগমের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় নিহতের স্বামী নাজিম উদ্দিন ও ভাই শাহিনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে পুলিশ।

জানা যায়, জমি নিয়ে খোরশেদা বেগমের সঙ্গে ছোট ভাই শাহিনের বিরোধ চলছিল। এ ঘটনায় নিহতের ছেলে রাজু আহম্মেদ বাদী হয়ে জামালপুর সদর থানায় মামলা করেছেন।

অপরদিকে, সদর উপজেলার রানাগাছা ইউনিয়নের মহেশপুর কালীবাড়ী এলাকা থেকে জাহিদ নামে এক যুবকের জবাই করা লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহত জাহিদ জামালপুর পৌরসভার নয়াপাড়া পাঁচরাস্তা গ্রামের মৃত জবেদ মিয়ার ছেলে। এ ঘটনায় মহেশপুর কালীবাড়ী এলাকার মৃত শাহেদ আলীর ছেলে সাজু মিয়াকে আটক করেছে পুলিশ।

জামালপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী শাহনেওয়াজ জানান, জাহিদ হত্যার ঘটনায় সাজু মিয়া নামে একজনকে আটক করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তিনি জবাই করে হত্যার কথা স্বীকার করেছেন। ঘটনাস্থল থেকে হত্যায় ব্যবহৃত একটি ছুরি উদ্ধার করা হয়েছে।

তিনি আরও জানান, গত রমজান মাসে জাহিদ মিয়ার সঙ্গে সাজুর জেলখানায় পরিচয় হয়। সোমবার রাতে জাহিদ সাজুর বাড়িতে যান। রাতে দুজনে একসাথে নেশা করেন। পরে কোনো এক সময় ঘরেই জাহিদকে জবাই করে হত্যা করেন সাজু। সকাল ১১টার দিকে জাহিদের মরদেহ রাস্তার পাশে ফেলে যাওয়ার সময় স্থানীয় লোকজন সাজুকে আটক করে পুলিশে দেয়। উভয় মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।

 

আরও পড়ুন...