জামালপুর পৌর এলাকায় আক্রান্ত বেশি, শনাক্ত ২৩, মৃত্যু ১

স্টাফ রিপোর্টার,জামালপুর: জামালপুরের প্রত্যেক উপজেলায় প্রতিদিন বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। তবে উপজেলাগুলোর তুলনায় সদর উপজেলাতে আক্রান্তের হার বেশি। এরমধ্যে জামালপুর পৌরসভা এলাকাতে সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ শনাক্ত হচ্ছে। সংক্রমিতদের মধ্যে মারা গেছে একজন বৃদ্ধ। এ নিয়ে করোনায় আক্রান্ত হয়ে জেলায় মোট মৃত্যু ৩৭ জনে দাঁড়ালো।

গত এক সপ্তাহের পরিসংখ্যান অনুযায়ী জেলায় করোনা আক্রান্তের হার ঊর্ধ্বমুখী। পর্যাপ্ত নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষার ব্যবস্থা করা গেলে এই হার আরও বাড়বে বলে অভিমত ব্যক্ত করেছেন অভিজ্ঞ মানুষজন।

মঙ্গলবার (১৫ জুন) জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের দেয়া তথ্য অনুযায়ী ২৪ ঘন্টায় ১০৬টি নমুনা পরীক্ষায় ২৩ ব্যক্তির দেহে করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। এর আগের দিন ১১৭টি নমুনা পরীক্ষায় ২১ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়।

এছাড়া সোমবার দুপুরে (১৪ জুন) পৌরসভার গেটপাড় এলাকায় বাড়িতে আইসোলেশনে থাকা ৮০ বছরের এক বৃদ্ধ করোনা সংক্রমণে মারা গেছে। শনিবার (১২ জুন) ওই বৃদ্ধের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছিল। রবিবার (১৩ জুন) নমুনা পরীক্ষায় করোনা শনাক্ত হলে সোমবার (১৪ জুন) তার মৃত্যু হয়। স্বাস্থ্যবিধি মেনে ওই বৃদ্ধকে দাফন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় স্বাস্থ্য বিভাগ।

নতুন আক্রান্তদের মধ্যে জামালপুর পৌরসভা এলাকাতে রয়েছে ১৩ ব্যক্তি। বাকিরা সদর উপজেলা ও অন্য উপজেলার বাসিন্দা। গেল এক সপ্তাহের পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, ৭ উপজেলার মধ্যে পৌর এলাকাতে আক্রান্তের হার বেশি।

স্থানীয় স্বাস্থ্য বিভাগ ১৫ জুনের করোনা আপডেটে জানায়, পৌরসভার বিজিবি ক্যাম্পে ১, কাচারীপাড়ায় ৫, কম্পপুরে ১, বোষপাড়ায় ১, আমলাপাড়ায় ১, পাথালিয়ায় ১, সকাল বাজার ১, মাতৃসদন ১ ও বানাকুড়ায় ১ জনের করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হয়। এছাড়া সদর উপজেলার নরুন্দীতে শনাক্ত হয় ১ জন ও শাহবাজপুরে ২ জন।

উপজেলাগুলোর মধ্যে মেলান্দহ উপজেলা সদরে ২ ও মাহমুদপুরে ১, মাদারগঞ্জ উপজেলা সদরে ১, কয়ড়ায় ১ ও তারতাপাড়ায় ১ এবং সরিষাবাড়ী উপজেলার চর সরিষাবাড়ীতে ১ জনের দেহে করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হয়।

সিভিল সার্জন প্রণয়কান্তি দাস এসব তথ্য নিশ্চিত করে পিবিএ’কে জানান, জেলার অন্যান্য এলাকার চেয়ে পৌর এলাকায় বেশি সংক্রমণ হচ্ছে। যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ না করা এবং মাস্ক না পরার কারণে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ছে।

তিনি আরও জানান, জেলায় এ পর্যন্ত ২৩৮৮ ব্যক্তির দেহে করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। এরমধ্যে মারা গেছে ৩৭ নরনারী এবং সুস্থ হয়েছে ২১৮৫ জন। এর বিপরীতে ২২৯৯৪টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

এদিকে, সংক্রমণ বাড়ায় জামালপুর পৌর এলাকাকে উচ্চ ঝুঁকিসম্পন্ন গণ্য করে রবিবার (১৩ জুন) এক গণবিজ্ঞপ্তি জারি করে ৩০ জুন রাত ১২ পর্যন্ত জনসাধারণের জন্য বিধি-নিষেধ আরােপ করেছেন জেলা প্রশাসক মুর্শেদা জামান।

পিবিএ/রাজন্য রুহানি/জেডএইচ

আরও পড়ুন...