জাহাজভাঙা কারখানায় ধর্মঘট প্রত্যাহার

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে জাহাজভাঙার কারখানায় ডাকা ধর্মঘট প্রত্যাহার করেছে বাংলাদেশ শিপ ব্রেকার্স অ্যান্ড রিসাইক্লার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিএসবিআরএ)। বুধবার বিকেলে বিষয়টি ঢাকা পোস্টকে নিশ্চিত করেন বিএসবিআরএর সহকারী সচিব নাজমুল ইসলাম।

না জানিয়েই কাস্টমস, এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশন চারটি জাহাজভাঙা কারখানায় অভিযান চালালে ক্ষুব্ধ হন মালিকরা। এ কারণেই তাদের সংগঠন বিএসবিআরএ মঙ্গলবার রাতে জানিয়ে বুধবার সকাল থেকেই ধর্মঘট পালন শুরু করে। তবে ২৪ ঘণ্টা না যেতেই এ ধর্মঘট প্রত্যাহার করল সংগঠনটি।

বিএসবিআরএর সহকারী সচিব নাজমুল ইসলাম বলেন, ভ্যাট কমিশনারের সঙ্গে আমাদের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৈঠকের মাধ্যমে ভুল বোঝাবুঝির অবসান হয়েছে। ধর্মঘট প্রত্যাহার করা হয়েছে। কাল (বৃহস্পতিবার) সকাল থেকে কারখানায় কাজ শুরু হবে।

এর আগে সকালে ধর্মঘট ডাকার কারণ হিসেবে তিনি বলেন, আমাদের না জানিয়ে সীতাকুণ্ডের জাহাজভাঙা কারখানাগুলোয় অভিযান চালানোর বিষয়টি অনেকেই মানতে পারেনি। তাই মালিকপক্ষ আজ থেকে ধর্মঘট পালন করছে।

নাজমুল ইসলাম জানান, মঙ্গলবার দুপুরে পূর্ব ঘোষণা কিংবা কোনো ধরনের নোটিশ না দিয়ে চারটি কারখানায় একযোগে অভিযান চালায় কাস্টম, এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনের তিনটি দল। একযোগে পৃথক পৃথক কারখানায় গিয়ে দল তিনটি নথিপত্র ও কম্পিউটার জব্দ করে। এর প্রতিবাদে সীতাকুণ্ডে সবকটি জাহাজভাঙা কারখানা অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করে বিএসবিআরএ। এতে কারখানায় জাহাজ কাটিং, স্ক্র্যাপ সরবরাহসহ সব ধরনের কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে।

আরও পড়ুন...