ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে  নববধুকে জবাই করে হত্যা

পিবিএ,ঝিনাইদহ: ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে আয়েশা খাতুন মিম (১৫) নামে এক নববধুর জবাই করা মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শুক্রবার দুপুর আড়াইটার দিকে কালীগঞ্জ উপজেলার কাষ্টভাঙ্গা গ্রামের রাস্তার পাশের একটি লিচু বাগান থেকে তার মরাদেহ উদ্ধার করে।
নিহত গৃহবধু ওই গ্রামের দিন মজুর ইদ্রীস আলীর মেয়ে। তবে নিহতের পরিবার বলছে, মিমের স্বামী তাকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যেয়ে হত্যা করেছে।দুই মাস আগে আয়েশা খাতুন মিমের সাথে একই উপজেলার রঘুনাথপুর গ্রামের হাশেম আলীর ছেলে এখলাস উদ্দীনের সাথে বিয়ে হয়।
প্রেম করে বিয়ে করায় ছেলের পরিবার বিয়েটি মেনে না নেওয়ায় মিম কাষ্টভাঙ্গা গ্রামে বাবার বাড়িতেই থাকতো। বৃহস্পতিবার রাতে তার স্বামী শশুর বাড়ি নিয়ে যাওয়ার কথা বলে ডেকে নিয়ে যায়। কালীগঞ্জ থানার ওসি ইউনুস আলী জানান, কাষ্টভাঙ্গা গ্রামের হতদরিদ্র ইদ্রিস আলীর মেয়ে আয়শা খাতুনের সাথে একই উপজেলার রঘুনাথপুর গ্রামের এখলাস উদ্দীনের বিয়ে হয়।
গতকাল ১৫ আগষ্ট বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে জামাই এখলাস শশুর বাড়ির পাশে এসে মিমকে খবর দেয়। খবর পেয়ে মিম বাড়ি থেকে বেরিয়ে যায়। পরের দিন শুক্রবার দুপুরে কাষ্টভাঙ্গা গ্রামের মাঠের মধ্যে একটি লিচু বাগানে গৃহবধু মিমের গলাকাটা মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখে এলাকাবাসী পুলিশকে খবর দেয়। ঘটনার পর থেকে তার স্বামী এখলাস পলাতক রয়েছে।
তবে মিমের স্বামী এখলাস এ হত্যাকান্ড ঘটিয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে বলেও জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।
ঝিনাইদহ -৪ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনার ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান শিবলী নোমানী ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেন ও নিহতের পরিবারকে শান্তনা দেন।
পিবিএ/আরিফ মোল্ল্যা/ইকে

আরও পড়ুন...