টি২০ বিশ্বকাপে সরিফুল ডাক পাওয়াতে আনন্দে ভাসছে এলাকাবাসি

ইনসান সাগরেদ,পঞ্চগড়: আসন্ন টি২০ বিশ্বকাপে ১৫ সদস্যের বাংলাদেশ জাতীয় দলের খেলোয়ারদের নামের তালিকা প্রকাশ করেছে বিসিবি। এতে ঠাই পেয়েছে সর্বশেষ অনুর্ধ ১৯ বিশ্বকাপ জয়ী বাংলাদেশ যুবাদলের সদস্য পেসার সরিফুল ইসলামের নাম। পঞ্চগড়ের প্রত্যন্ত একটি গ্রাম থেকে পর্যায়ক্রমে যুবাদলের হয়ে বিশ্বকাপ জেতা, জাতীয় দলে সুযোগ পাওয়া এবং সর্বশেষ আসন্ন টি২০ বিশ্বকাপ দলে সুযোগ পাওয়া সরিফুলকে নিয়ে গর্বিত পঞ্চগড়বাসী মাতোয়ারা। আনন্দে আত্মহারা পরিবার সহ এলাকার মানুষ, চলছে মিষ্টিমুখ।

জেলার দেবীগঞ্জ উপজেলার মৌমারী নগরডাঙ্গা গ্রামে ২ ছেলে আর ২ মেয়ে নিয়ে দুলাল মিয়া আর বুলবুলি খাতুনের ছিলো অনটনের সংসার। অভাবী বাবা মা একটা সময় যে ছেলের খেলোয়ার হবার সপ্নের কথা শুনে হতেন বিরক্ত, ডানপিটে সেই ছেলেটিই এখন দাপড়ে বেড়াচ্ছেন এক বিশ্বকাপ থেকে আরেক বিশ্বকাপে।

২০১৯ অনুর্ধ বিশ্বকাপ খেলায় সফলতার পর জাতীয় দল হয়ে এখন স্থান করে নিয়েছেন টি২০ বিশ্বকাপে বাংলাদেশ জাতীয় দলের ১৫ সদস্যের তালিকায়। বয়ে আনছেন সুনাম নিজের পরিবার, নিজ এলাকা এবং সর্বপরি নিজের দেশের জন্য।

সরিফুলের একসময়ের খেলার সাথী প্রতিবেশী সহপাঠি আয়নাল জানান, আমরা একসাথেই খেলতাম। তখন থেকেই মুগ্ধ হতাম ওর খেলায়। জানতাম ও ভালো কিছু করবে একদিন। তবে, পারিবারিক অভাব অনটন সহ সব প্রতিকুলতাকে পেছনে ফেলে এই অজোপাড়াগাঁও থেকে ওর ওতদুর পর্যন্ত যাওয়া সত্যিই রুপকথার মতই লাগছে। আমি ওকে নিয়ে গর্ববোধ করি। একটাসময় পড়ালেখায় ফাঁকি দিয়ে লুকিয়ে ক্রিকেট খেলার জন্য যে ছেলের ওপর ছিলেন বিরক্ত আজ সেই ছেলের সাফল্যেই গর্ব বোধ করেন তারা, জানালেন সিরিফুলের বাবা দুলাল মিয়া। সিরিফুলের মা বুলবুলি বেগম জানান, ছেলের প্রত্যেকটি খেলার সময় অনেক আগ্রহ নিয়ে টিভির সামনে বসে থাকেন তিনি, সৃষ্টিকর্তার কাছে ছেলের তথা বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সাফল্যের জন্য দোয়া পড়তে থাকেন। তার আশা তার ছেলে বিশ্বকাপে ভালো খেলে শুধু তারই নয় বরং পুরো বাংলাদেশের মুখ উজ্জ্বল করবে।

আসন্ন টি২০ বিশ্বকাপ দলে সরিফুল সুযোগ পাওয়াতে আনন্দে ভাসছে এলাকার মানুষ, করছেন মিষ্টিমুখ। একদিন এই সরিফুলের হাত ধরেই বিশ্বকাপটা আসবে বাংলাদেশের ঘরে এমনটাই প্রত্যাশা তাদের।

 

আরও পড়ুন...