তালায় দু’পক্ষের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে নিহত ১

পিবিএ,তালা (সাতক্ষীরা): সাতক্ষীরার তালায় জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধে দু’পক্ষের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে রইজ ফকির (৩৩) নামে এক যুবক চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। এ নিয়ে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

মঙ্গলবার (৪ আগষ্ট) দুপুর ২ টার দিকে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন তিনি। এদিকে সংঘর্ষের ঘটনায় তালা থানায় পৃথক দুইটি মামলা করা হয়েছে। আতিয়ার পক্ষের মামলা নং ১, তারিখ ৩/৮/২০ এবং জাকির পক্ষের মামলা নং ২, তারিখ ৪/৮/২০ ইং।

স্থানীয় গ্রামবাসি জানান, তালা উপজেলার নেহালপুর গ্রামের আতিয়ার রহমানের সাথে ২৭ শতক জমি নিয়ে প্রতিবেশি জাকির শেখ’র দীর্ঘদিন বিরোধ চলে আসছিলো। এরই জের ধরে রবিবার (২ আগষ্ট) সকালে বিরোধীয় জমি দখলকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে উভয় পক্ষের আট জন আহত হয়।

আহতদের প্রথমে তালা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। কিন্তু আহতদের মধ্যে রইজ ফকিরের অবস্থা আশংক্কাজনক হওয়ায় তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য প্রথমে সাতক্ষীরা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার (৪ আগষ্ট) দুপুর ২ টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

নিহত রইজের স্ত্রী রুবিনা বেগম জানান, তাদের আত্মীয় জাকিরের বাড়িতে বেড়াতে গিয়েছিলো রইজ ফকির। সেখানে জমি নিয়ে বিরোধে আতিয়ারের ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীরা তার স্বামী রইজের মাথায় আঘাত করে। এতে রইজ মারাত্বক আহত হয়ে আজ (মঙ্গলবার) সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারাগেছে।

তিনি আক্ষেপ করে বলেন,‘আমার মরা ছাড়া কোনো পথ নাই। অল্প বয়সে স্বামী হারালাম। দুইটা বাচ্চা নিয়ে এখন কোথায় যাবো, কি করবো। আতিয়ারের ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীরা আমার স্বামীরে পিটিয়ে হত্যা করেছে। আল্লাহ ওদের বিচার করবে।’

জালালপুর ইউপি চেয়ারম্যান এম. মফিদুল হক লিটু জানান, বিষয়টি নিয়ে আগামী শনিবার ইউনিয়ন পরিষদে দুই পক্ষের মধ্যে মিমাংশার জন্য দিন ধার্য ছিল। এরমধ্যে জমি দখলকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের সংঘর্ষে রইজ ফকির (মঙ্গলবার) মারা গেছেন।

তালা থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মেহেদী রাসেল জানান, মারা যাওয়ার বিষয়টি শুনেছি। বিষয়টি নিয়ে দুই পক্ষের মারামারির ঘটনায় পাল্টাপাল্টি মামলা হয়েছে।

পিবিএ/মো. রোকনুজ্জামান টিপু/এইচএস

আরও পড়ুন...