দলীয় মনোনয়ন চান হত্যা মামলার আসামি, জানতে চাইলে সাংবাদিককে নিয়ে অপপ্রচার

পিবিএ,জামালপুর: জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে নানা অপকর্মসহ হত্যা মামলার আসামি হয়েও কালো টাকার প্রভাবে ইউপি নির্বাচনে লড়তে নৌকার মনোনয়ন ফরম কিনেছেন সিদ্দিকুর রহমান নামে এক যুবলীগ নেতা। তার বিরুদ্ধে অভিযোগের বক্তব্য জানতে মুঠোফোনে কল করলে স্থানীয় এক সাংবাদিককে হুমকি ও মিথ্যা অপপ্রচার চালিয়েছেন এলাকায়।

অভিযুক্ত সিদ্দিকুর রহমান সরিষাবাড়ী উপজেলা যুবলীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক ও ৫নং পিংনা ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি।

অভিযোগে জানা যায়, সিদ্দিকুর রহমান নব্বইয়ের দশকে মেইয়া গ্রামের রহিম মিয়ার শ্যালো মেশিন ডাকাতি করতে যান। এসময় মেশিনের চালককে তিনি ছুরিকাঘাতে হত্যা করেন। এ ঘটনায় তিনি দীর্ঘ ৯ বছর কারাভোগ করেন। অপরদিকে র‌্যাব পরিচয়ে ডাকাতির অভিযোগেও পৃথক এক মামলা তাঁর বিরুদ্ধে চলমান, সে মামলায় বর্তমানে তিনি জামিনে আছেন। তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে, এলাকায় আধিপত্য বিস্তার করে এককভাবে বালুর ব্যবসা ও পিংনার গোপালগঞ্জ গরুর হাট নিয়ন্ত্রণ করে আসছেন। সরকারিভাবে গরুর হাটটি মিনহাজ উদ্দিনকে ইজারা এবং পরিচালনার জন্য হাসান আলী নায়েবকে সভাপতি করা হলেও তাদের কোনো কর্তৃত্ব নেই। সিদ্দিকুর রহমান তাঁর নিজের বাহিনী দিয়ে হাট নিয়ন্ত্রণ করে প্রতি সপ্তাহে সিংহভাগ বিক্রি রশিদ গোপন করে ও প্রতিমাসে মোটা অঙ্কের টাকা লোকসান দেখিয়ে ব্যক্তিগতভাবে বিপুল পরিমাণ টাকার সুবিধা হাতিয়ে নিচ্ছেন। এলাকায় উন্নয়ন বরাদ্দ এলেও প্রভাব খাটিয়ে এককভাবে কাজ করার নামে সরকারি টাকার নয়-ছয় করেন। মাত্র দুই বছরে তিনি কয়েক কোটির টাকার মালিক হয়ে বর্তমানে চলাফেরা করেন ব্যক্তিগত দামি গাড়িতে। বাড়িতে নির্মান করছেন বিলাসবহুল বহুতল ভবন। আসন্ন ৫নং পিংনা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নৌকা প্রতীকে লড়তে ৩০ হাজার টাকা দিয়ে জেলা আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন ফরম কিনেছেন তিনি।

এসব অভিযোগের ব্যাপারে বক্তব্য জানতে দৈনিক মানবকন্ঠ ও ডেইলি অবজারভারের উপজেলা প্রতিনিধি এবং সাম্প্রতিক দেশকালের জেলা প্রতিনিধি জাকারিয়া জাহাঙ্গীর বৃহস্পতিবার রাত ৭.৫৩টায় সিদ্দিকুর রহমানকে মুঠোফোনে কল করলে তিনি ক্ষিপ্ত হয়ে হন ও নানা আপত্তিকর মন্তব্য করেন। তারই প্ররোচনায় কিছুক্ষণ পর আব্দুল আজিজ ও রাইসুল ইসলাম নামে দুইটি ফেসবুক আইডি থেকে জাকারিয়া জাহাঙ্গীরের মোবাইল নম্বর উল্লেখ করে আপত্তিকর স্ট্যাটাস পোস্ট করা হয়। এ ব্যাপারে সরিষাবাড়ী থানায় একটি লিখিত এজাহার দায়ের করা হয়েছে।

অভিযোগ প্রসঙ্গে যুবলীগ নেতা সিদ্দিকুর রহমান জানান, ‘রাজনীতি করলে অনেক মামলা হতেই পারে, বঙ্গবন্ধুও জেল খেটেছেন হয়। পত্রিকায় লিখলে যা হয়, হোক।’ রাজনৈতিক অতীত পরিচয় নিয়ে প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, ‘পিংনা ইউনিয়নে আমরা আওয়ামী লীগ জন্ম দিছি।’

সাংবাদিককে জড়িয়ে অপপ্রচারের বিষয়ে সরিষাবাড়ী থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আব্দুল মজিদ জানান, ‘এ ব্যাপারে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি, বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। ‘

আরও পড়ুন...