দীঘিনালায় স্কুল ঘেঁষে তামাক চাষ, শিক্ষার্থীদের নেই খেলার মাঠ

পিবিএ,দীঘিনালা: খাগড়াছড়ি দীঘিনালা উপজেলায় মেরুং ইউনিয়নে তামাকের আগ্রাস থেকে বাদ পড়েনি প্রাথমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠনও। স্কুলের সামনে করা হয়েছে তামাকের চাষ। বিদ্যালয়ের সামনে এই তামাক চাষের ফলে ব্যহত হচ্ছে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের পড়ালেখা এবং খেলাধুলা। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় বিদ্যালয়ের সামনেই করা হয়েছে তামাকের চাষ। এলাকার স্থানীয় ইন্দ্রমনি চাকমা বলেন, আমাদের রসিক পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সামনে কোন জায়গা না থাকায়, বিদ্যালয়টিতে খেলার মাঠের ব্যবস্তা করা সম্ভব হয়নি। যার ফলে এই বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী’রা খেলাধুলায় পিছিয়ে রয়েছে।

অত্র চতুর্থ শেণির সুপ্তা চাকমা, তৃতীয় শ্রেণি রীতিষা চাকমা ও কবিতা চাকমা শিক্ষার্থীরা বলেন, আমাদের বিদ্যালয়ে খেলার মাঠ নাই, তাই আমরা খেলোধুলা করতে পারিনা, তবে বিদ্যালয়ের সামনে তামাক চাষ করা হয়েছে। তামাকের গন্ধ আমাদের নাকে এসে লাগে যা নিশ্বাস খুব অস্থিকর লাগে । এ বিষয়ে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ মিনহাজ উদ্দিন বলেন, রসিক পাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের জায়গার কাগজ পত্র ক্ষতিয়ে দেখতে হবে, তবে বিদ্যালয় আঙ্গিনায় গেসে তামাক চাষ করা বেআইনি ব্যপারটি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এই বিষয়ে রসিক পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি ,তবে স্কুল কমিটির সভাপতি সুশীল বিকাশ চাকমার সাথে কথা বলে জানা যায় বিদ্যালয়ের ৫০ শতক জায়গা রয়েছে। আর বিদ্যালটি স্থাপনের ফলে কোন জায়গা না থাকায় সেখানে শিক্ষার্থীদের খেলার কোন মাঠের ব্যবস্তা করা সম্ভব হচ্ছে না। বিদ্যালয়টি স্থাপিত হয়েছে ১৯৯২ সালে, ২০১৩ সালে জাতীয় করন ভুক্ত করা হয়। তবে বিদ্যালয়ে নেই শহিদ মিনার, নেই খেলার মাঠ, ব্যহত হচ্ছে প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের পড়ালেখা, খেলাধুলা

স্থানীয় ইন্দ্রমনি চাকমা জানান যে রসিক পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কোন খেলার মাঠ নেই। বিদ্যালয়ের সামনে যেই জায়গাটি আছে তা বিদ্যালয় বা সরকারি জায়গা না।আর বিদ্যালয় যেখানে আছে তা একজন ব্যাক্তির দান করেছিলেন। তবে বিদ্যালয় স্থাপন করার জন্য জায়গা দান করলেও , বিদ্যালয়ের খেলার মাঠের জন্য কোন জাগয়া দেওয়া হয়নি। যার কারনে সেখানে স্থানীয় কৃষক তামাক চাষ করেছে। আর তার কারনে আমাদের রসিক পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী’রা অনেক শাররিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে, পিছিয়ে রয়েছে খেলাধুলায়। সরকারের কাছে দাবী জানাচ্ছি যেন এই রসিক পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠের একটি জায়গা ব্যাবস্তা করেন।

পিবিএ/সোহেল রানা/বিএইচ

আরও পড়ুন...