‘দেশটা আমার নয়’

মারুফ কামাল খান: ‘দেশটা আমার নয়’ এই বেদনাদায়ক অনুভূতিতে কোনো খাদ নেই। তবে যে পরিস্থিতি এই অনুভূতি সৃষ্টি করছে সেই অবস্থা ডেকে আনবার জন্য সচেতন নাগরিকদেরও কমবেশি দায় আছে। লোভী, অপরাধী, স্তাবক রাজনৈতিক দুর্বৃত্তদের কথা বলছি না। বলছি নাগরিক সমাজের কথা। যাদের কর্তব্য ছিল সব সময় সাদাকে সাদা কালোকে কালো বলা। কোনো পক্ষ না নিয়ে, কোনোদিকে না তাকিয়ে কোদালকে সাহস করে কোদাল কি তারা সব সময় বলেছেন? কেউ রাজনৈতিক বিশ্বাস ও পছন্দের কারণে ক্ষমতাবানদের অন্যায়-অপরাধের দিকে চোখ বুজে থেকেছে। অথবা ইনিয়ে বিনিয়ে সমর্থন করেছে। ‘ফুটন্ত কড়াই, জ্বলন্ত উনুন’ তত্ত্ব আওড়ে টিকিয়ে রেখেছে। অতীতের সঙ্গে কল্পিত তুলনা হাজির করে ‘মন্দের ভালো’ বলে ছাড়পত্র দিয়েছে। আবার কেউ তথাকথিত নিরপেক্ষতা ও ভারসাম্য রক্ষার অতি সংবেদনশীলতা দেখিয়ে একপক্ষের অপরাধের বয়ানের সাথে অপ্রাসঙ্গিকভাবে অন্যপক্ষকে টেনে এনে আসল অপরাধকে লঘু করেছে বা দায়মুক্তি দিয়েছে। এই সুশীল প্রবণতা ক্ষমতার অপব্যবহার, দুর্নীতি, সন্ত্রাসকে দুর্দমনীয় করে সারা দেশের মানুষকে জিম্মি করে ফেলেছে। কায়েম হয়েছে দুর্বৃত্তের শাসন। রাজনৈতিক মাফিয়া ও গডফাদার ছাড়া সকলেই দ্বিতীয় শ্রেনীর নাগরিকে পরিণত হয়েছে। পদানত রাষ্ট্রশক্তিকে তারা জান্তব শক্তিতে পরিণত করে জনগণের অধিকার দমনের কাজে ব্যবহার করছে। কেবল আফসোস করে এ থেকে নিষ্কৃতি নেই। অনিবার্য পরিবর্তনকে ত্বরান্বিত করতে না পারলে পালিয়ে যেতে হবে, দাসত্ব করতে হবে নতুবা নির্যাতীত হতে হবে।

লেখক:সাংবাদিক, কলামিষ্ট।

(লেখাটি চ্যানেল আই-এর ‘তৃতীয় মাত্রা’র জিল্লুর রহমানের একটি স্ট্যাটাসে লেখকের  কমেন্টস থেকে নেয়া)

আরও পড়ুন...

ঘরে বসেই নিজের বিকাশ একাউন্ট খুলুন