দেশের মানুষের হৃদয়ে স্থান পেয়েছে র‍্যাব : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, সীমান্তে হত্যাকাণ্ড বন্ধ হচ্ছে না। এটা দুঃখজনক। বিজিবি ও বিএসএফ তাদের সাধ্যমতো সীমান্তে হত্যাকাণ্ড বন্ধে চেষ্টা করছে।

মঙ্গলবার (২৪ জানুয়ারি) দুপুরে দেশের বৃহত্তম সেচ প্রকল্প তিস্তা ব্যারাজ এলাকায় লালমনিরহাট ও নীলফামারী জেলার শীতার্ত মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের মধ্যে যাদের কবর দেশের বাহিরে রয়েছে, তাদের কবর দেশে আনার ইচ্ছে রয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার।

আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, র‍্যাব আজ এলিট ফোর্স হিসেবে জনগণের সেবায় কাজ করে যাচ্ছে। সেবার জন্য দেশের মানুষের হৃদয়ে স্থান পেয়েছে র‍্যাব। মানুষের আশ্রয়ের জায়গা হিসেবে স্থান করে নিয়েছে। তাই র‍্যাব বাহিনীর কথা আজ সবার মুখে মুখে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর দূরদর্শিতায় দেশ আজ জঙ্গিবাদ দমনে সক্ষম হয়েছে। দেশের মানুষ জঙ্গিবাদকে সমর্থন করে না। জঙ্গির মা তার ছেলেকে র‍্যাব প্রধানের হাতে তুলে দিয়েছে। র‍্যাব তাকে সংশোধন করে দেশের কল্যাণে কাজে লাগিয়েছে।

তিনি বলেন, দেশের সর্বত্র সকল মানুষের মুখে একটাই কথা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিকল্প নেই। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যতদিন থাকবেন ততদিন দেশের আকাশ বাতাস ভালো থাকবে। বাংলাদেশ আলোকিত থাকবে। এগিয়ে যাবে।

সীমান্তে মাদকের ছড়াছড়ির বিষয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে তো আর মাদক তৈরি হয় না। সীমান্ত দিয়ে মাদক আসছে- এটি আমরা প্রতিনিয়তই শুনছি। ভারত-বাংলাদেশের বৈঠকে ওইসব নিয়ে কথা হয়। এসব বিষয়ে আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছি। আমাদের কিছু দুর্গম বর্ডার আছে। ওইসব সীমান্তে বিজিবি সদস্য বাড়ানো হচ্ছে। বর্ডারে চোরাচালান যেন না করতে পারে সে কারণে হেলিকপ্টার কিনে দিয়েছি। আমরা আশা করছি বিজিবি যেভাবে কাজ করছে এতে মাদক বা চোরাচালনের কোনো চিহ্নই থাকবে না।

র‍্যাবের আয়োজনে এই শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন লালমনিরহাট জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সংসদ সদস্য মোতাহার হোসেন। অনুষ্ঠানে র‍্যাবের মহাপরিচালক এম খুরশীদ হোসেন, ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক টি এম মমিন, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মতিয়ার রহমান ও পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম।

আরও পড়ুন...