নাটোরে চিকিৎসকসহ ৩১ জনের করোনা পজিটিভ

পিবিএ,নাটোর: নাটোরে একদিনে ৩১ জন সংক্রমিত হওয়ায় জেলায় করোনা আক্রান্ত বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৬১ জনে। শনিবার বিকালে ঢাকার ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অব ল্যাবরেটারি মেডিসিন এন্ড রিসার্স থেকে পাঠানো নমুনার রেজাল্টে ১৫ জন করোনায় আক্রান্ত হওয়ার বিষয়টি নাটোর সিভিল সার্জ অফিসকে নিশ্চিত করা হয়। ঢাকার ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট ল্যাব থেকে জানানো হয় মোট ১৬৮ জনের নমুনা পরীক্ষার পর ১৫ জনের রেজাল্ট করোনা পজিটিভ এবং ১১৩ জনের রেজাল্ট নেগেটিভ আসে।

অপরদিকে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) ল্যাব থেকে আরও ১৬ জনের রেজাল্ট করোনা পজিটিভ বলে জানানো হয়। রাজশাহী মেডিকেল কলেজের (রামেক) ভাইরোলজি বিভাগের প্রধান ও ল্যাব ইনচার্জ প্রফেসর ডা. সাবেরা গুলনাহার এই তথ্য নিশ্চিত জানান, শনিবার রামেক ল্যাবে দুই শিফটে ১৮৮ জনের নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। এর মধ্যে ৩৭ জনের নমুনায় করোনা পজিটিভ এসেছে।

নতুন আক্রান্তদের মধ্যে নাটোরের ১৬ জন ও রাজশাহীর ২১ জন। নাটোর সিভিল সার্জন অফিসের সিনিয়র মেডিকেল টেকনোলজিষ্ট হাফিজার রহমান ঢাকার ন্যাশনাল ল্যাব ও রমেক ল্যাব থেকে এসংক্রান্ত তথ্য পেয়েছেন বলে জানান । তিনি জানান, শনিবার বিকালে ঢাকার ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অব ল্যাবরেটারি মেডিসিন এন্ড রিসার্স থেকে মোট ১৬৮ জনের নমুনার রেজাল্ট পাওয়া গেছে। এর মধ্যে ১৫ জনের রেজাল্ট করোনা পজিটিভ এবং অবশিষ্ট ১১৩ জনের রেজাল্ট নেগেটিভ। আক্রান্তদের মধ্যে লালপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রের একজন অফিস সহায়কসহ ৪ জন, নাটোর কেন্দ্রিয় জামে মসজিদ মার্কেটের মোবাইল ডটকমের একজনসহ সদর উপজেলায় ৪ জন, সদর হাসপাতালে ৪ জন ,গুরুদাসপুর উপজেলায় ২ জন এক জন সাংবাদিক এবং সিংড়া উপজেলায় ১ জন রয়েছেন। অপরদিকে রামেক ল্যাব থেকে পাঠানো তথ্যে ২ জনের ঠিকানার বিষয় নিশ্চিত হওয়া যায়নি। রামেক ল্যাব থেকে পাঠানো করোনা পজিটিভদের মধ্যে গুরুদাসপুরে ৪ জন, লালপুরে ২জন,বাগাতিপাড়ায় ১ জন এবং নাটোর সদরে ৭ জন। এই দুই র‌্যাব থেকে পাওয়া প্রাপ্ত তথানুসারে সদর হাসপাতাল সহ নাটোর সদরে ১৫ জন,গুরুদাসপুর উপজেলায় ৬ ,লালপুরে ৬,সিংড়ায় ১ ও বাগাতিপাড়ায় ১ জন।

নাটোরের সিভির সার্জন ডাঃ মিজানুর রহমান জানান, রামেক ও ঢাকার ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট থেকে পাঠানো ৩১ জন করোনা সংক্রমিত হওয়ার বিষয়টি জানানো হয়েছে।

অবশ্য এরমধ্যে রাজশাহীতে নমুনা প্রদানকারী জেলা তথ্য অফিসার মিজানুর রহমানকে নাটোরের তালিকায় সংযুক্ত করা হয়েছে। এনিয়ে জেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা এখন ২৪৬ জন। ইতিমধ্যে নাটোর সদর হাপতালের অর্থোপেডিকস ডাক্তার তৈমুর রহমান সহ ৬৬ জন সুস্থ হয়েছেন এবং ১ জন মৃত্যুবরণ করেছেন। আক্রান্ত ব্যক্তিদের হোম আইসোলেশনসহ তাদের পরিবারের সদস্যদের হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকতে বলা হয়েছে। এছাড়া আক্রান্ত ব্যক্তির বাড়ি ও প্রতিষ্ঠান লকডাউন করার জন্য স্ব স্ব উপজেলা প্রশাসনসহ স্বাস্থ বিভাগকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

পিবিএ/মোঃ রাশেদুল ইসলাম/এমআর

আরও পড়ুন...