ফের ভ্যাকসিন রফতানি শুরু করছে ভারত

বিদেশে করোনার ভ্যাকসিন রফতানি হঠাৎ বন্ধ করে দেওয়ার পর অবশেষে আগামী মাস থেকে ফের তা চালু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারত।

সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী মনসুখ মানদাভ্য তার সরকারের এ সিদ্ধান্তের কথা জানান।

বিশ্বের শীর্ষ ভ্যাকসিন উৎপাদক দেশ ভারত। অভ্যন্তরীণ বিপুল চাহিদার বিপরীতে যোগান নিশ্চিত করতে হিমশিম খাওয়ায় গত এপ্রিলে ভ্যাকসিন রফতানির উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে দেশটির ৯৪ লাখ ৪০ হাজার প্রাপ্তবয়স্ককে ভ্যাকসিনের আওতায় আনার লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে সরকারের। এ লক্ষ্যমাত্রা পূরণে অনেকটাই এগিয়ে গেছে দেশটি। এ পর্যন্ত ভারতের ৬১ শতাংশ প্রাপ্তবয়স্ক কমপক্ষে এক ডোজ ভ্যাকসিনের আওতায় এসেছেন।

উল্লেখ্য যে, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেবনে। ওয়াশিংটনে তিনি কোয়াড শীর্ষ সম্মেলনে যুক্তরাষ্ট্র, জাপান ও অস্ট্রেলিয়ার রাষ্ট্রপ্রধানদের সঙ্গে বৈঠক করবেন। এছাড়া জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৭৬তম অধিবেশনেও যোগ দেবেন তিনি। ওয়াশিংটনে বিশ্বনেতাদের সঙ্গে নরেন্দ্র মোদির বৈঠকে ভ্যাকসিন রফতানির জন্য ভারতের উপর চাপ আসতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। নরেন্দ্র মোদি ওয়াশিংটনের উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেওয়ার আগেই ভ্যাকসিন রফতানির সিদ্ধান্ত জানাল দিল্লি।

সোমবার ভারতের স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, তার সরকার ভ্যাকসিন রফতানিতে প্রতিবেশী রাষ্ট্রগুলোকে অগ্রাধিকার দেবে। তিনি বলেন, প্রতিবেশীরা সবার আগে ভ্যাকসিন পাবে। শুধুমাত্র উদ্বৃত্ত ভ্যাকসিন আমরা রফতানি করব।

উল্লেখ্য যে, গত এপ্রিলে ভ্যাকসিন রফতানিতে নিষেধাজ্ঞা জারির আগে প্রায় ১০০টি দেশে ৬ কোটি ৬০ লাখ ভ্যাকসিন বিক্রি ও অনুদান দেয় ভারত।

সূত্র: রয়টার্স

আরও পড়ুন...