বরিশালে প্রেমিক-প্রেমিকার আপত্তিকর ভিডিও ভাইরাল

পিবিএ: বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই শিক্ষার্থীর (প্রেমিক-প্রেমিকা) অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ভিডিও ফেসবুকে ছড়িয়ে দেয়ার অভিযোগে দায়ের হওয়া মামলায় দুই সহপাঠীকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

সোমবার বিকেলে তাদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়। তারা বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের মৃত্তিকা বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী।

ক্যাম্পাস সূত্রে জানা যায়, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের মৃত্তিকা বিজ্ঞান বিভাগের চতুর্থ বর্ষের দুই শিক্ষার্থীর মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। বিভিন্ন সময় মেলামেশা করেন তারা। পরে মেলামেশার অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ভিডিও মুঠোফোনে ধারণ করেন প্রেমিক। এরপর তা ল্যাপটপে রেখে দেন। প্রেমিকের ল্যাপটপ থেকে ওই ভিডিও চুরি করে নিজের ফোনে নেন এক বান্ধবী। পরে তা ওই বান্ধবী তার বন্ধুকে দেন।

সম্প্রতি ওই ভিডিও ফেসবুকে ছড়িয়ে দেন তার ওই বন্ধু। প্রেমিক-প্রেমিকার আপত্তিকর ভিডিও ফেসবুকে ফাঁস হলে ক্যাম্পাসে নিন্দা ও সমালোচনার ঝড় ওঠে। এ অবস্থায় ক্লাসে আসা বন্ধ করেন ওই প্রেমিক যুগল। এ ঘটনায় থানায় মামলা করেন প্রেমিক। পরে ঘটনায় জড়িত দুজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

ক্যাম্পাস সূত্র থেকে আরো জানা গেছে, এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ববি’র ছাত্রী হোস্টেলে বাদী ও অভিযুক্তদের মধ্যে বাকবিতন্ডা হয়। অনাকাংখিত ঘটনা এড়াতে ক্যাম্পাস পুলিশ তিনজনকেই আটক করে বন্দর থানায় নিয়ে যায়। এরপর আসল ঘটনা বেরিয়ে আসলে বাদী মামলাটি দায়ের করেন। ওই মামলায় ববি’র দুই শিক্ষার্থীকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে প্রেরণ করা হয়।

বন্দর থানা পুলিশের ওসি মোস্তফা কামাল হায়দার বলেন, ফেসবুকে ভিডিও ছড়িয়ে দেয়ার ঘটনায় এক শিক্ষার্থী থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেন। মামলার প্রেক্ষিতে অভিযুক্ত দুই শিক্ষার্থীকে রোববার রাতে গ্রেপ্তার করা হয়। তারা নিজেদের দোষ স্বীকার করেছেন। বিকেলে তাদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

পিবিএ/জেআই

আরও পড়ুন...