বাগেরহাটে ১০ টাকা কেজি দরের ১৮ বস্তা চাল উদ্ধার, আটক-১

পিবিএ,বাগেরহাট:বাগেরহাটের শরণখোলায় দরিদ্র কার্ডধারীদের বরাদ্দ পাওয়া ১০ টাকা কেজি দরের ১৮ বস্তা চাল এক মুদি দোকানীর গুদাম থেকে উদ্ধার করেছে উপজেলা প্রশাসন। এসময় মুদি দোকানি রফিকুল ইসলাম ওরফে লিটন মুন্সি (৩৫) আটক করা হয়। তবে খাদ্য বিভাগের ইউনিয়ন ডিলার হাওলাদার তরিকুল ইসলাম তারেক পালিয়ে গেছেন। শুক্রবার রাত সোয়া দশটার দিকে শরণখোলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সরদার মোস্তফা শাহিন সাউথখালি ইউনিয়নের তাফালবাড়ি বাজারে অভিযান চালিয়ে এই চাল জব্দ করেন। প্রশাসনের হাতে আটক মুদি দোকানী রফিকুল ইসলাম উদ্ধার হওয়া চাল খাদ্য বিভাগের ডিলার হাওলাদার তরিকুল ইসলাম তারেকের বলে দাবি করেছেন। আটক রফিকুল ইসলাম ওরফে লিটন মুন্সি উপজেলার রায়েন্দা গ্রামের মজিদ মুন্সীর ছেলে।

হাওলাদার তরিকুল ইসলাম তারেক সাউথখালী ইউনিয়নের খাদ্য বিভাগের ডিলার। তিনি শরণখোলা উপজেলা সাইথখালি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান হাসানুজ্জামান পারভেজের ছোট ভাই।

শরণখোলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সরদার মোস্তফা শাহিন বলেন, দরিদ্রদের জন্য বরাদ্দ হওয়া চাল তাদের না দিয়ে গুদামে সরিয়ে রাখা হয়েছে এই গোপণ সংবাদের ভিত্তিতে তাফালবাড়ি বাজারের মুদি দোকানি মো. রফিকুল ইসলামের গুদামে অভিযান চালিয়ে যাই। সেখানে গিয়ে তার গুদাম থেকে ৩০ কেজি ওজনের ১৮ বস্তা চাল উদ্ধার করা হয়। গত বৃহষ্পতিবার খাদ্য বিভাগের সাউথখালি ইউনিয়নের ডিলার হাওলাদার তরিকুল ইসলাম তারেক এই মুদি দোকানির গুদামে চাল সরিয়ে রেখেছিলেন বলে আটক মুদি দোকানি জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছেন। অভিযানের খবর পেয়ে ডিলার হাওলাদার তরিকুল ইসলাম তারেক পালিয়ে গেছেন। তাকে ধরতে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে। এই চাল তিনি স্থানীয় দরিদ্রদের মাঝে বিক্রি না করে বেশি দাম পাওয়ার আশায় এখানে সরিয়ে রেখেছিলেন বলে ধারনা করা হচ্ছে। এই ইউনিয়নের কার্ডধারীরা বিগত দিনে ঠিকমত চাল পেয়েছে কিনা তার তালিকা দেখে তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

বাগেরহাট জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক মনোতোষ কুমার মজুমদার বলেন, গত ১২ মার্চ খাদ্য বিভাগের সাউথখালি ইউনিয়নের ডিলার হাওলাদার তরিকুল ইসলাম তারেক ৩৯০ জন কার্ডধারী দরিদ্রদের জন্য খাদ্যগুদাম থেকে ১০ টাকা কেজি দরের সাড়ে এগারো মেট্রিকটন চাল উত্তোলন করেন। যে মাসে ডিলার চাল উত্তোলন করবেন সেই মাসের মধ্যে সব বিক্রি করার বিধান রয়েছে। আমাদের এই ডিলার নিয়ম না মেনে চাল অনন্যে গুদামে সরিয়ে রেখে অপরাধ করেছেন। নিয়ম অনুযায়ি ওই ডিলারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। শরণখোলা খাদ্যগুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম বাদী হয়ে ডিলার হাওলাদার তরিকুল ইসলাম তারেক ও মুদি দোকানি মো. রফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে বিশেষ ক্ষমতা আইনে থানায় একটি মামলা করেছেন।

শরনখোলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল্লাহ আবু সাইদ বলেন, সরকারি বরাদ্দ হওয়া চাল উদ্ধারের ঘটনায় আটক মুদি দোকানি ও ডিলার তরিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে থানায় বিশেষ ক্ষমতা আইনে একটি মামলা করেছে খাদ্য বিভাগ। ডিলার তরিকুলকে ধরতে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে।

তবে ডিলার হাওলাদার তরিকুল ইসলাম তারেক উদ্ধার হওয়া চাল তার না বলে স্থানীয় গনমাধ্যমকর্মীদের কাছে দাবি করেছেন।##
পিবিএ/সোহাগ হাওলাদার/এএম

আরও পড়ুন...