বান্দরবানে বগালেক প্রতি আকর্ষণ বাড়ছে পর্যটকদের

পিবিএ,বান্দরবান: অপরুপা বান্দরবানের রুমা উপজেলায় রহস্যে ঘেরা বগালেক পর্যটন কেন্দ্রের প্রতিনিয়ত আকর্ষণ বেড়েই চলেছে ভ্রমন পিপাষু প্রকৃতি প্রেমী পর্যটকদের। সরজমিনে স্থানীয়দের সাথে আলাপ কালে জানাযায় বগালেক নিয়ে প্রচলিত আছে লোমহর্ষক পৌরাণিক কাহিনি।তবে বর্তমানে বগালেক বোম পাড়ায় বসবাসরত অধিকাংশ পাড়াবাসীরাই শুশিক্ষিত।তাদের মতে এই কাহিনী অনেকটাই কাল্পনিক। পর্যটকদের মুগ্ধ করতে তাদের আন্তরিক প্রচেষ্টায় জায়গা করে নিয়েছে সারাদেশে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন দৃষ্টিনন্দন পাড়ার মধ্যে একটি।

যান্ত্রিক জীবন থেকে প্রকৃ্তির সান্নিধ্যে এসে বুকভরে নিঃশ্বাস নিতে দলে দলে আসছে ২০০৫ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগের অধ্যাপক ডঃ মোহাম্মদ শহীদুল ইসলাম এর পরিমাপকৃ্ত ভূ-পৃষ্ট হতে ১০৭৩ ফুট উচ্চতায় ১১৫ ফুট গভীরতা সম্পন্ন প্রাকৃ্তিক লেক ও মন-মুখদ্ধকর দৃষ্টি নন্দন এই বগালেকে। বর্তমান সরকারের আন্তরিকতায় বান্দরবানের অন্যান্য উন্নয়নের পাশাপাশি সড়ক যোগাযো্গের অভুতপূর্ব উন্নয়নের ফলে পর্যটকদের আগ্রহ বাড়ার অন্যতম কারন।

বান্দরবান সরকারী কলেজের বিএ প্রথম বর্ষের ছাত্রী জুলি ভিক্টোরি বোম বলেন কলেজ ছুটির দিন গুলিতে পরিবারকে সহযোগীতা করতে পারিবারিক ব্যাবসা প্রতিষ্ঠানটি পরিচালনা করি।এই বগালেকের বাসিন্দা হতে পেরে গর্ব বোধও কম নয়। এই পাড়ার বর্তমান সময়কার প্রায় সকল ছেলে মেয়ে দেশের বিভিন্ন স্কুল কলেজে লেখা পড়া কছেন।পাড়ার সবাই মিলে চেষ্টা করি এই পাড়ায় আগত পর্যটকদের ভাল ব্যবহার দিতে এবং সর্বউচ্চ সহযোগীতা করার চেষ্ঠা করি। নিরাপত্তা ব্যাবস্তার ক্ষেত্রে বাংলাদেশ সেনা বাহিনী রুমা জো্নের ভুমিকাও প্রশংসনীয়।

পিবিএ/নয়ন চক্রবর্তী/বিএইচ

আরও পড়ুন...