বাবা মায়ের অবহেলায় সন্তান প্রতিবন্ধী

পিবিএ, মানিকছড়ি, খাগড়াছড়ি: একটু খানি ভুলের ত্বরে অনেক বিপদ ঘটে। গুনিজনরা অনেক ভেবে চিন্তে কথা গুলো বলে গেছেন। এমনি এক ভুলের খেশারত ভোগ করছে খাগড়াছড়ির মানিকছড়ি উপজেলার গচ্ছাবিল গ্রামের  শারীরিক প্রতিবন্ধী মোঃ তাজুল ইসলাম। বয়স ১৭ বছর। বাবার দ্বিতীয় ঘরের তিন ছেলের মধ্যে সে দ্বিতীয় সন্তান ।

manik chari

তার মা জানায়,একজন স্বাভাবিক শিশুর মতই জন্মগ্রহণ করে তাজুল। জন্মের সময় সে পুরোপুরি সুস্থ ছিল । জম্মের পর তাকে  কোনো ধরনের টিকা দেয়া হয়নি।  সে কিছুটা দাঁড়াতে ও হাঁটতে পারত। কিন্তু এক বছর পর থেকে তার শরীরে নানা রকম পরিবর্তন দেখা দেয় । কয়েক দিন  সে আর দাঁড়াতে ও হাঁটতে পরেনা।

আমাদের সকল বাবা মা’র উচিৎ,প্রত্যেক শিশুকে সময় মত সব কয়টি টিকা দেয়া। যাতে তাজুলের মত পরিনতি না হয়।

মানিকছড়ি স্বাস্থ্য কর্মকর্তা জানান,জম্মের পর সকল শিশুদের প্রতিষেধক ৬ টি টিকা দেওয়া হয়। তার মাধ্যমে শরীরে নানা রকম রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা জম্মায়। তেমনি তাজুল কে সে সব টিকা না দেওয়ার কারণে সে প্রতিবন্ধী হয়ে গেছে।

সব সময় হাসিখুশি থাকতে পছন্দ করে তাজুল। গ্রামের ছোট ছেলে মেয়েদের সাথে খেলাধূলা করাই তার কাজ। খেলার মাঠে কেউ থাকুক আর না থাকুক তাজুল থাকবেই। তার কাছে খেলাধূলা করার জন্য কোনো রুটিন বা সময় নেই। যখন ইচ্ছা তখন মাঠে হাজির। হাটা চলা ও কথাবার্তা না বলতে পারলেও সে সব বোঝে। গ্রামের সকল ছেলে মেয়ে তাকে তাদের বন্ধু ভাবে।

পিবিএ/জেএইচ/হক

আরও পড়ুন...