ভারী বৃষ্টিপাতের পর লন্ডনে আকস্মিক বন্যা

ভারী বৃষ্টি ও বজ্রপাতের প্রভাবে যুক্তরাজ্যের রাজধানী লন্ডনের কয়েকটি এলাকায় দেখা দিয়েছে আকস্মিক বন্যা। রাস্তা ও আন্ডারগ্রাউন্ড লাইনে পানির উচ্চতা দ্রুত বেড়ে যাওয়ায় বেশ কিছু গাড়ি আটকে পড়ার খবরও পাওয়া গেছে। রবিবার কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে প্রায় তিন শতাধিক জরুরি কল পেয়েছে সেখানকার ফায়ার সার্ভিস। খারাপ আবহাওয়ায় ঘরের বাইরে বের হওয়ার বিষয়ে সতর্ক করেছেন আবহাওয়া বিশেষজ্ঞরা। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

দক্ষিণ-পূর্ব ইংল্যান্ডের বেশিরভাগ স্থানে বজ্র বৃষ্টির সতর্কতা জারি করা হয়েছে। কোনও কোনও এলাকায় ৭৫ থেকে একশ’ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হতে পারে বলেও পূর্বাভাসে জানানো হয়েছে। দেশটির আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, লন্ডনের কাছে দুইটি এলাকায় জোরালো বন্যার সতর্কতা জানানো হয়েছে। এছাড়া আরও ১৪টি এলাকায় বন্যা হতে পারে বলেও জানানো হয়।

ওয়ালথামস্টো এলাকার বাসিন্দা ক্রিস ডেট এক টুইট বার্তায় জানিয়েছেন, বাসে উঠতে গিয়ে তার পা তলিয়ে গেছে। তিনি বলেন, ‘এটা খাল, রাস্তা নয়।’ সাইকেল চালক এডি ইলিয়ট জানান, কুইনসটাউন এলাকার কাছে একটি সড়ক প্রায় অচল হয়ে পড়েছে। তিনি বলেন, লন্ডনে জন্ম ও বেড়ে উঠলেও এই রকম কিছু আগে কখনওই দেখেননি তিনি।

বন্যার কারণে বন্ধ হয়ে গেছে লন্ডনের বেশ কিছু সড়ক। এছাড়া বিভিন্ন পথে যাত্রাও বিলম্বিত হচ্ছে। এছাড়া আটটি টিউব স্টেশন এবং একটি আন্ডারগ্রাউন্ড স্টেশন বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

আবহাওয়া অফিসের কর্মকর্তা স্টিভেন কিটস জানিয়েছেন, রবিবার বিকেলে লন্ডনের কয়েকটি এলাকায় একশ’ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়েছে। গত সপ্তাহের তীব্র গরমের পর ভারী বৃষ্টিতে খানিক স্বস্তি মিললেও আকস্মিক বন্যায় তৈরি হয়েছে দুর্ভোগ।

আরও পড়ুন...