মহাদেবপুরে ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় শিশুর মৃত্যু

আমিনুর রহমান খোকন,মহাদেবপুর নওগাঁ: নওগাঁর মহাদেবপুরে দাঁতের ডাক্তার প্রদীপ কুমারের ভূল চিকিৎসায় হাসিবুর রহমান (৪) নামে এক শিশুর মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। নিহত শিশু পাশ্ববর্তী পত্নীতলা উপজেলার আকবরপুর ইউনিয়নের চান্দইল পশ্চিমপাড়া গ্রামের সানোয়ার হোসেনের ছেলে।

থানা পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, রবিবার (১১ সেপ্টেম্বর) সকাল ১১টার দিকে হাসিবুর রহমানকে নিয়ে তার মা ও নানা দাঁতের চিকিৎসার জন্য মহাদেবপুর উপজেলার গাহলী বাজারে অবস্থিত ডাঃ প্রদীপ কুমার মন্ডলের আশা ডেন্টাল কিওর হোম এ নিয়ে আসেন। দাঁত দেখার পর একটি দাঁতের কিছু অংশ পোকায় খেয়ে নিয়েছে জানিয়ে ডাক্তার প্রদীপ দাঁতটি তুলে ফেলতে হবে বলে জানান। দাঁত তুললে তার ক্ষতি হবে এমন শঙ্কায় শিশুটির মা ও নানা দাঁত না তুলে চিকিৎসা করতে বলেন। কোন সমস্যা হবে না জানিয়ে ডাক্তার দাঁত তোলার প্রস্তুতি নেন। এ সময় শিশুটির মা দাঁত তুলতে নিষেধ করলেও ডাক্তার তা অমান্য করে নিহত শিশুর দুই হাতে ও দাঁতে ইনজেকশন পুশ করে ক্ষত দাঁতটি তুলে ফেলেন। দাঁত তোলার পর শিশুটির মা লক্ষ্য করেন যে, তার ছেলের সারা শরীর নীল হয়ে গেছে। বিষয়টি তিনি ডাক্তারকে জানালে জরুরী ভিত্তিতে অক্সিজেন দেয়া প্রয়োজন জানিয়ে দ্রুত মহাদেবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যেতে বলেন ওই ডাক্তার। দুপুরে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মহাদেবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আজম উদ্দীন মাহমুদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

আরও পড়ুন...