মোদিকে সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় সম্মান ‘অর্ডার অব জায়েদ’ দিচ্ছে আরব-আমিরাত

পিবিএ ডেস্ক: ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করার পাশাপাশি রাজ্যের সম্মানও কেড়ে নিয়েছে মোদি সরকার। এরপর দুই সপ্তাহ ধরে অবরুদ্ধ অবস্থায় রয়েছেন কাশ্মীরিরা। বিশ্ব থেকে বিচ্ছিন্ন কাশ্মীরে কী হচ্ছে সে বিষয়ে তেমন কিছুই জানা যাচ্ছে না। এই ইস্যুতে বিশ্বের মুসলিমদের আওয়াজ তোলার দাবি জানিয়েছেন অনেকে।

ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, আগামী ২৩ ও ২৪ আগস্ট আমিরাত সফরে যাবেন মোদি।  এমন অবস্থার মধ্যে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে সর্বোচ্চ সম্মাননা ‘অর্ডার অফ জায়েদ’ তুলে দিবেন সংযুক্ত আরব আমিরাত।

এ বছর এপ্রিল মাসে সংযুক্ত আরব আমিরাতের যুবরাজ ঘোষণা করেন, তাঁর ‘প্রিয় বন্ধু’ মোদিকে এই সম্মান দেওয়া হবে। আবুধাবির যুবরাজ টুইট করে বলেন, ‘‘ভারতের সঙ্গে আমাদের ঐতিহাসিক যোগাযোগ রয়েছে। আমার প্রিয় বন্ধু মোদি সেই যোগাযোগ দৃঢ়তর করে তুলেছেন। এই অবদানের স্বীকৃতি হিসাবে সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রেসিডেন্ট তাঁকে জায়েদ পদক প্রদান করবেন।’’

তবে, তখন এই পুরস্কার প্রদানের সময় বা তারিখ জানানো হয়নি। জায়েদ মেডেল বা অর্ডার অব জায়েদ হল আমিরাতের সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মান। বিভিন্ন দেশের প্রেসিডেন্ট, রাজা বা অন্যান্য রাষ্ট্রপ্রধানকে ওই পদক দেওয়া হয়।

এর আগে এই সম্মান পেয়েছেন চিনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং, ইথিওপিয়ার প্রধানমন্ত্রী আবি আহমেদ, ইরিট্রিয়ার প্রেসিডেন্ট ইসাইয়াস আফওয়েরকি। পাকিস্তানের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট পারভেজ মুশারফ, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন এবং ব্রিটেনের রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ।
বিশ্লেষকরা বলছেন, কাশ্মীর ইস্যুতে যখন পাকিস্তান গোটা বিশ্বের মুসলিম দেশগুলিকে একত্রিত করার চেষ্টা করছে, তখন সংযুক্ত আরব আমিরাতের পক্ষ থেকে মোদিকে সর্বোচ্চ সম্মান দেয়া তাৎপর্যপূর্ণ। এর মাধ্যমে কাশ্মীর ইস্যুতে আরব-আমিরাতের অবস্থানও স্পষ্ট হলো।

পিবিএ/ইকে


আরও পড়ুন...

ঘরে বসেই নিজের বিকাশ একাউন্ট খুলুন