রংপুরে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের উন্নয়নে কাজের পরিকল্পনা কর্মশালা

পিবিএ,রংপুর: প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের উন্নয়নে কাজের পরিকল্পনা ও বাস্তবায়ন শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। আজ বুধবার দুপুর ১২ টায় রংপুর নগরীর হোটেল ক্যাসপিয়ায় প্রতিবন্ধী নারীদের জাতীয় পরিষদ (এনসিডিডাব্লিউ) ও এডিডি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ এ কর্মশালার আয়োজনে করে। প্রতিবন্ধী নারীদের জাতীয় পরিষদ (এনসিডিডাব্লিউ) সভাপতি নাছিমা আক্তার এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) সৈয়দ এনামূল কবির।

অন্যন্যেদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, সহকারী প্রকৌশলী, এলজিইডি রংপুর জেলার সাজ্জাদ হাসানত, রংপুর জেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার শাহরিনা দিলরুবা, রংপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি রশিদবাবু, রংপুর পল্লী দারিদ্র বিমোচন ফাউন্ডেশন উদ্ধর্তন সহকারী পরিচালক নাজমুল হক, বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের সাধরণ সম্পাদিকা রুম্মানা জামান তফা।

স্বাগত বক্তব্য রাখেন, রংপ্রু রংধনু জেলা প্রতিবন্ধী অধিকার সংস্থার সহ সভাপতি নুরে আলম, অনুষ্ঠানটি উপস্থাপন করেন, হাসানুজ্জামান, ফিল্ড কো-অর্ডিনেটর, প্রতিবন্ধী নারীদের জাতীয় পরিষদ (এনসিডিডাব্লিউ)। এ সময় বক্তারা বলেন, প্রতিবন্ধীরা কখনও সমাজের বোঝা ও অবহেলিত নয়। সরকার প্রতিবন্ধী মানুষদের উন্নয়ণে নানমূখী উদ্যেগ গ্রহন করেছেন। সমাজ সেবা অধিদপ্তরের মাধ্যমে বিভিন্ন উন্নয়ন মূলক কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছেন।

আমরা যদি তাদের সঠিক শিক্ষায় শিক্ষিত করে গড়ে তুলতে পারি তাহলে তারাও দেশের উন্নয়নের কাজে সক্রিয় ভূমিকা রাখতে সক্ষম। এ জন্য প্রয়োজন কারিগরি প্রশক্ষিণ দিয়ে দক্ষ করে গড়ে তোলা। প্রতিবন্ধীদের অধিকার বিষয়ক আইন ও নীতিমালা বিষয়ে সচেতনতা সৃষ্টি করা প্রয়োজন। প্রতিবন্ধীতার কারণে পিছিয়ে নপড়া শিক্ষার্থীদের শিক্ষা অধিকার, নিশ্চিতকরণে ভর্তি সংক্রান্ত জটিলতা নিরসনে ব্যবস্থা গ্রহণের উদ্যেগ। প্রতিবন্ধীদের কর্মসংস্থান ও কোটা সংরক্ষরণ করা প্রয়োজন। প্রতিবন্ধীদের দক্ষতা উন্নয়নে সকল কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে নির্ধারিত ৫% কোটা নিশ্চিত করার দাবি করেন। প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদেও চাহিদানুযায়ী কর্মে নিযুক্তির জন্য সহায়ক উপকরণ ও সুযোগ-সুবিধা প্রচলন ও নিশ্চিত করা প্রয়োজন। প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের জন্য বিশেষভাবে শিক্ষা উপবৃত্তি চালু করার দাবী জানান।

এ সময় শারিরিক প্রতিবন্ধী নিরঞ্জন রায় বলেন, প্রতিবন্ধীদের শিক্ষার ক্ষেত্রে গুরুত্ব ও সুযোগ সুবিধা বাড়ানো প্রয়োজন। ইউনিয়ন পরিষদের ষ্ট্যান্ডিং কমিটিতে অন্তর্ভূক্তি হলে স্থানীয় সরকারের সুযোগ সবিধা পাওয়ার সম্ভনা থাকে। এই কর্মশালায়, জনপ্রতিনিধি, প্রশাসনিক কর্মকর্তা সাংবাদিক সমাজ ও সুধীজন উপস্থিত ছিলেন।

পিবিএ/মেজবাহুল হিমেল/বিএইচ

আরও পড়ুন...