রামেক হাসপাতালে করোনায় আরও ৫ জনের মৃত্যু

গত ২৪ ঘণ্টায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে আরও পাঁচজন মারা গেছেন। এদের মধ্যে করোনায় একজন, উপসর্গ নিয়ে তিনজন এবং করোনা নেগেটিভ হয়েও অন্যান্য শারীরিক জটিলতায় একজন মারা গেছেন।

বুধবার (২৭) অক্টোবর সকাল ৯টা থেকে বৃহস্পতিবার (২৮) সকাল ৯টার মধ্যে হাসপাতালের করোনা ইউনিটে তারা মারা যান।

রামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় রামেক হাসপাতালে করোনা সংক্রমণে রাজশাহীর একজন মারা গেছেন। করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন রাজশাহী, চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও পাবনা জেলার একজন করে। এ ছাড়া করোনা নেগেটিভ হয়ে অন্যান্য শারীরিক জটিলতায় মারা গেছেন রাজশাহীর আরও একজন।

গত এক দিনে সর্বোচ্চ চারজনের মৃত্যু হয়েছে হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্রে (আইসিইউ)। এছাড়া ২৯/৩০ নম্বর ওয়ার্ডে মারা গেছেন একজন।

এদিকে রোগী কমে আসায় আরেক দফা শয্যা কমানো হয়েছে রামেক হাসপাতালের করোনা ইউনিটে। ১৯২ শয্যা থেকে নামিয়ে শয্যা রাখা হয়েছে ১০৪টি। বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা পর্যন্ত হাসপাতালের করোনা ইউনিটে রোগী ভর্তি ছিলেন ৫০ জন। এক দিন আগেও এই সংখ্যা ছিল ৫৫ জন। বর্তমানে রাজশাহীর ২২ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের ১১ জন, নাটোরের সাতজন, নওগাঁর ছয়জন এবং পাবনার চারজন রোগী হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।

হাসপাতালে করোনা নিয়ে ভর্তি রয়েছেন ছয়জন। করোনার উপসর্গ নিয়ে ভর্তি রয়েছেন ৩৮ জন। করোনা ধরা পড়েনি ভর্তি ছয়জনের। এ ছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন সাতজন। এই একদিনে হাসপাতাল ছেড়েছেন ছয়জন। এর আগে বুধবার রামেক হাসপাতাল ল্যাবে ৯৪ জনের নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। তাতে করোনা শনাক্ত হয়েছে দুজনের।

একই দিনে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ ল্যাবে ২৭৯ জনের নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। এর মধ্যে করোনা ধরা পড়েছে তিনজনের। পরীক্ষার অনুপাতে করোনা শনাক্তের হার রাজশাহীতে ১ দশমিক ০২ শতাংশ এবং নাটোরে ২ দশমিক ৬৭ শতাংশ।

আরও পড়ুন...