সরকার ক্ষমতা স্থায়ী করতে রঙে রঙে সমাজকে কলুষিত করেছ

পিবিএ,ঢাকা: বিএনপির যুগ্ম মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেছেন, এই সরকার নিজের ক্ষমতাকে স্থায়ী করার জন্য রঙে রঙে সমাজকে এতো বেশী কলুষিত করেছে যে হাজার হাজার বালতি গরুর দুধ ঢেলে দিয়েও এটা পবিত্র করা অসম্ভব।

তিনি বলেন, আপনারা পত্রিকায় দেখেছেন না নওগাঁয়ে আওয়ামী লীগ’র এক গ্রুপের পতন হয়েছে আরেক গ্রুপের হাতে ক্ষমতা এসেছে। তারা যখন ওই আওয়ামী লীগ অফিসে ঢুকলো ৪৯ বালতি দুধ দিয়ে ধুয়ে তা পবিত্র করেছে। যারা নিজেরা জানে তারা অপবিত্র তাদেরকে এ সমাজকে মুক্ত করতে হলে দুর করতে হবে। বাংলাদেশের ভবিষ্যতকে স্বাধীনতার স্বপ্নের সাথে মিল রেখে মানবিক মর্যাদা ও ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার লক্ষে এই লড়াইকে সামগ্রিকভাবে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে।

শুক্রবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে জিয়া পরিষদ আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। প্রফেসর আব্দুল কুদ্দুসের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।

ধর্ষণের বিচার মৃত্যুদণ্ড করা এটা একটা ভাওতাবাজি মন্তব্য করে আলাল বলেন, একজন আইনজীবী হিসেবে বলি নারী ও শিশু নির্যাতন নিয়ে এই সরকার যে আইন পাস করেছে সে আইনের ৩৪ ধারা ১২ টি ধারায় মৃত্যুদণ্ড আগে থেকেই ছিল। সেখানে মানব পাচার আইন ও এসিড নিক্ষেপ আইনের ধারা চলে গেছে। বাকি থেকে সাতটি। সেই সাতটি ধারার সাথে নতুন একটি ধারা মৃত্যুদণ্ড যুক্ত করে গোবর গলাচ্ছে আর নিজেরা নিজেরা হাততালি দিচ্ছে। অথচ নতুন মৃত্যুদণ্ডের বিধান নিয়ে ওই আইনে আটটি মৃত্যুদণ্ডের বিধান হয়েছে।

একটি জাতির সাথে আর কত প্রতারণা করা যায়? এরমধ্যে কথা বলবেন টাকা দিয়ে ভিপি নুরের দলকে যেভাবে ভেঙে দিচ্ছে সেরকম ভেঙে দেয়া হবে। টাকা দিয়ে অর্থ দিয়ে সুবিধা দিয়ে তাদেরকে বায়েস্ট করা হবে কারণ এখনো তো ওই ধণের লোক পাওয়া যায়।

বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব বলেন, একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর তিনি কিভাবে দিনের পর দিন মিডিয়াতে প্রকাশ্যে বলেন আমার এই পট্টি নিয়ে আমাকে যুবলীগের চেয়ারম্যান বানালে আমি খুশি।

ঢাবির ভিসির সমালোচনা করে তিনি বলেন, একজন ছাত্রী ধর্ষণের শিকার হওয়ার পরে তার সাথে দেখা করে এসে সাংবাদিকদের বলেন ওর জীবনে একটা অভিজ্ঞতা হয়েছে, তখন কি ইচ্ছে করে বলেন? শিক্ষকদের প্রতি পরিপূর্ণ শ্রদ্ধা রেখে বলছি তখন ইচ্ছে করে ঘরের বারান্দায় বা বাহিরের ডাস্টবিনে কোথাও পুরনো ময়লাযুক্ত চপ্পল আছে কিনা। এর বেশি আমি আর কিছু বললাম না।

রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির সমালোচনা করে বলেন, তিনি ১২ মাসের ১১ মাস ঢাকায় থাকেন। সেখানে যে বাংলো সে বাংলোতে তিনি থাকেন না; অন্য এক জায়গায় থাকেন আর সেই তালাবদ্ধ বাংলো এবং যেখানে থাকেন উভয় জায়গার ভাড়া তিনি নেন।

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির সমালোচনা করে তিনি বলেন, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় ডুকলেই দেখবেন লেখা আছে রাজনৈতিক মুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান কিন্তু যুবলীগের ১৯ নম্বর প্রেসিডিয়াম সদস্য হলেন ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি। এরপর টেন্ডারের দরকষাকষি নিয়ে ছাত্রলীগের নেতাদের সাথে মোবাইলের অডিও রেকর্ড বের হলো সেই ভিসির এখন পর্যন্ত কোনো কিছু হলো না।

আলাল বলেন, ১০ টাকার একটি ভাওতাবাজি এই সরকার শুরু থেকেই শুরু করেছে। আপনার লক্ষ্য করবেন কেউ ১০ টাকার চাল পায়নি। আমি চ্যালেঞ্জ করে বলতে পারি আওয়ামী লীগের লোকেরা ছাড়া কেউ পায়নি। তারপর বললো ১০ টাকায় কৃষকের ব্যাংক একাউন্ট অন কৃষকের ১০ টাকায় ব্যাংক অ্যাকাউন্ট হয়েছে গ্রামে নিয়ে গিয়ে খোঁজখবর নিয়ে দেখুন। মোটকথা যেখান থেকে আলো আসার কথা সেখান থেকে অন্ধকার আসছে। সেই অন্ধকারকে প্রতিরোধ করে যদি আলো না যায় তাহলে আওয়ামী লীগ পালিয়ে যেতে বাধ্য হবে।

সুতরাং আমরা শুধু রাজনৈতিক দিকগুলোর দিকে নয় সামগ্রিক দিকে দৃষ্টিপাত করি। তিনি বলেন, সময়টা এমন না যে ৬৯ এর মত একটা আন্দোলন হল নব্বইয়ের মত একটা আন্দোলন হল আর আওয়ামী লীগ ক্ষমতা থেকে চলে গেলো। এই সরকারের পতন ঘটিয়ে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করার জন্য পরিকল্পিতভাবে জনগণকে সাথে নিয়ে একটি বদ্ধ আন্দোলন করতে হবে।

পিবিএ/এমআর

আরও পড়ুন...