সিরাজগঞ্জের কাটাখালী খাল মশার প্রজনন কেন্দ্রে পরিণত

পিবিএ,সিরাজগঞ্জ: সিরাজগঞ্জ শহরকে কাটাখালী খাল দুভাগে বিভক্ত করেছে। গত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এই সরকারের ম্যান্ডেট ছিল কাটাখালীকে ঢাকার হাতির ঝিলের ন্যায় গড়ে তোলা। পৌরসভা থেকে এনিয়ে প্রকল্প বাস্তবায়ন শুরু করলেও, কোন এক অজানা কারণে থেমে গেছে প্রকল্পটি। আর বর্তমানে এই ঐতিহ্যবাহী কাটাখালী খালটি কচুরীপানায় পরিপূর্ন হয়ে মশার প্রজননের আদর্শ কেন্দ্রে পরিণত হয়েছে। মশার উপদ্রুপে সিরাজগঞ্জ সহ সারা দেশে মানুষ যখন দুশ্চিন্তায় দিন কাটাচ্ছে তখন বড় বড় খালগুলো পরিস্কারে কর্তৃক্ষের কোন উদ্যোগ না থাকায় পৌরবাসীর মধ্যে তীব্র ক্ষোভ বিরাজ করছে।

সিরাজগঞ্জ শহরের মধ্য দিয়ে প্রবাহিত কাটাখালি খালটির প্রায় ২কিলোমিটার এলাকা জুড়ে কচুরীপানায় ভরে গেছে। ৩/৪ মাস পূর্বে খালটির বিভিন্ন অংশে খনন কাজ শেষ করা হয়েছে। খননের পর সিরাজগঞ্জ সরকারী কলেজের পার্শ্বে একাংশে সিসি ব্লক দিয়ে পাড়ও বাঁধা হয়েছে। কিন্তু ঠিকাদার ও কতৃপক্ষের দুর্নীতিতে সিসি ব্লক দিয়ে বাঁধা পাড়টি ধ্বংসে গেছে।

এলাকাবাসী জানান, কচুরীপানার মধ্যে মশার প্রজনন হচ্ছে এবং সন্ধ্যা নামার সাথে সাথে বাসাবাড়ীতে তীব্র মশার আক্রমন চলে। মশা থেকে বাঁচতে কয়েল কিনতে হিমশিম খেতে হচ্ছে। গত এক সপ্তাহ যাবৎ কয়েলের দাম প্যাকেট প্রতি ১০/১৫ টাকা বৃদ্ধি পেয়েছে। শুুধু কাটাখালি খালই নয় শহরের অনেক স্থানের ড্রেনও ময়লা আবর্জনায় পরিপূর্ণ হয়ে গেছে। পৌরকর্তৃপক্ষের এ ব্যাপারে কোন মাথা ব্যাথ্যা নেই। সিরাজগঞ্জ পৌরসভার সচিব জানান, কচুরীপানা ও আবর্জনা পরিস্কারে দ্রুত পদক্ষেপ নেয়া হবে।

পিবিএ/সোহাগ লুৎফুল কবির/বিএইচ

আরও পড়ুন...