সেফুদাকে খোঁজছে পুলিশ, সব সম্পত্তি জব্দের নিদের্শ

পিবিএ ডেস্ক: ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় সেফাত উল্লাহ ওরফে সেফুদার স্থাবর অস্থাবর সম্পত্তি ক্রোকের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর) আদালত সূত্রে এমন তথ্যই পাওয়া গেছে।

গত ২ অক্টোবর মুসলমানদের ধর্মীয় গ্রন্থ কোরআনকে অবমাননার অভিযোগে মামলায় সেফাত উল্লাহ সেফুদার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির নির্দেশ দিয়েছে ট্রাইব্যুনাল। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক লাইভে তিনি এই অবমাননা করেছেন বলে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে করা মামলায় অভিযোগ করা হয়েছে।

বাংলাদেশ সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক আস সামস জগলুল হোসেন প্রতিবেদন আমলে নিয়ে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির এই নির্দেশ দেন। গ্রেফতার-সংক্রান্ত তামিল প্রতিবেদন দাখিলের জন্য ১৯ নভেম্বর দিন ধার্য করে আদালত। যার প্রেক্ষিতে সম্পত্তি ক্রোকের নতুন এই নির্দেশনা জারি করে আদালত।

এর আগে ১০ সেপ্টেম্বর মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের উপ-পরিদর্শক পার্থ প্রতিম ব্রহ্মচারী আসামি সেফাত উল্লাহর বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ২০১৮ এর ২৫/২৯/৩১ ধারার অপরাধ প্রমাণিত হওয়ায় প্রতিবেদন দাখিল করেন।

এতে বলা হয়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ দেশের বহু বরেণ্য ব্যক্তিদের প্রসঙ্গে কুরুচিপূর্ণ, অশ্লীল ও আক্রমণাত্মক মন্তব্য ও গালিগালাজ করা, মিথ্যা বা ভীতি প্রদর্শনকারী তথ্য-উপাত্ত প্রকাশ, মানহানিকর তথ্য প্রকাশ এবং একাধিক গোষ্ঠীর মধ্যে মতবিরোধ সৃষ্টিকারী মন্তব্য উপস্থাপন করেছেন সেফুদা। যা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ২০১৮ এর ২৫/২৯/৩১ ধারা অনুসারে অপরাধের শামিল। তাই তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য আদালতের নিকট এই প্রতিবেদন পাঠানো হয়।

পিবিএ/বিএইচ

আরও পড়ুন...