সৈয়দপুর বিমানবন্দরে বহিরাগতদের হামলায় এপিবিএন সদস্য আহত

পিবিএ,জাকির হোসেন,নীলফামারী: নীলফামারীর সৈয়দপুর বিমানবন্দরে জোড় পূর্বক প্রবেশ করার সময় বাধা দেওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে বহিরাগতদের হামলার শিকার হয়ে এপিবিএন সদস্য গুরুত্বর আহতাবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এ ঘটনায় মামলা হওয়ায় বহিরাগত তিন মোটর সাইকেল আরোহীকে আটক করেছে সৈয়দপুর থানা পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে ২৩ ফেব্র“য়ারি রবিবার সকালে বিমানবন্দরের প্রবেশ পথে।

সৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসপাতালের চতুর্থ তলায় ৩০ নং বেডে চিকিৎসাধিন এপিবিএন সদস্য কনস্টেবল মোঃ সেলিম হোসেন জানান, বিমানবন্দরে আন্তর্জাতিক মানে উন্নীত করণের কাজ চলমান থাকায় মূল ভবনে প্রবেশের ক্ষেত্রে নিষেধ রয়েছে। শুধুমাত্র যাত্রী ও সহযোগী ১ জন ছাড়া কেউ এখন সেখানে যেতে পারেনা। কিন্তু আজ সকাল আনুমানিক ১১ টার দিকে দুইজন মোটর সাইকেল আরোহী বিমানবন্দরে প্রবেশকালে তাদের প্রবেশে নিষেধ করা হলে তারা ক্ষিপ্ত হয়ে উটে এবং বলতে থাকে আমরাদেরকে চেনো।

এসময় তাদের বিমানবন্দর ম্যানেজারের অনুমতি নিয়ে প্রবেশ করার জন্য বলা হলে তারা অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ শুরু করে। এতে প্রতিবাদ করলে তারা মোটর সাইকেল থেকে নেমে আমাকে ধাক্কা দেয় এবং আমার পোশাক ছিড়ে ফেলে। এতে বাধা দিলে তারা দু’জনে মিলে পাশে থাকা গাছের সাথের লাঠি খুলে নিয়ে আমার উপর হামলা চালায় এবং বেড়ক মারপিট করে। এতে আমি হাতে পায়ে এবং মাথায় মারাত্মকভাবে জখম হই।

পরে বিমাবন্দরে দায়িত্বরত এপিবিএন সদস্যসহ আনসার ও পুলিশ সদস্যরা এগিয়ে এসে আমাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে এবং মোটর সাইকেল আরোহী তিনজনকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। এ ঘটনায় এপিবিএন’র ইন্সপেক্টর সালেকুজ্জামান বাদী হয়ে আটক ৩ জনের নামে সৈয়দপুর থানায় মামলা দায়ের করেছেন। আটক ব্যক্তিরা হলো সৈয়দপুর শহরের হাতীখানা মহল্লার শরিফের ২ ছেলে মোঃ ওমর আলী (২৪), হায়দার আলী (২২) এবং আলী আহসানের ছেলে এজাজ আহমেদ (২৫)।

সৈয়দপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আবুল হাসনাত খান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, আটক ৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে এবং তাদেরকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

পিবিএ/জাকির হোসেন/বিএইচ

আরও পড়ুন...