`সোনা জয়ের আনন্দে কান্না কিছুতেই থামছিল না’

পিবিএ, ডেস্ক : নেপালের এসএ গেমসে বাংলাদেশের শোকেসে উঠল আরেকটি সোনার পদক। আজ সকালে পোখারা আর্চারি স্টেডিয়ামে মেয়েদের কম্পাউন্ডের একক ইভেন্টে সোনা জেতেন মাগুরার মেয়ে সুমা বিশ্বাস। ফাইনালে সুমা ১৪২-১৩৪ পয়েন্টে হারিয়েছেন শ্রীলঙ্কার অনুরাধাকে। এ পর্যন্ত সব মিলিয়ে বাংলাদেশের ঝুলিতে উঠল ১৫টি সোনা।

শেষ তিরটি ছুড়েই কাঁদতে শুরু করেন সুমা। সোনা জয়ের আনন্দের কান্না কিছুতেই থামছিল না। ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক কাজী রাজীব উদ্দীন চপল ও সহকারী কোচ জিয়াউর রহমান পাশে দাঁড়িয়ে সুমাকে শান্ত করার চেষ্টা করেন।

আগের দিন আর্চারিতে ৬টি ইভেন্টের সবকটিতে সোনা জিতেছিল বাংলাদেশ। সোমবারও দিনের শুরুতে ছিল লাল-সবুজ প্রতিনিধিদের আধিপত্য। সকালেই কম্পাউন্ড এককে সোনা জিতে নিয়েছেন আর্চার সুমা বিশ্বাস। এরপরই পুরুষ এককে টান টান উত্তেজনাপূর্ণ ফাইনালে সোনার হাসি হেসেছেন সোহেল রানা।

আজ ফাইনালে ভুটানের তানজিং দরজির মুখোমুখি হয়েছেন সোহেল। সেখানে শেষ পর্যন্ত তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয়েছে। কিন্তু বাংলাদেশকে দিনের দ্বিতীয় সোনাটি ঠিকই এনে দিয়েছেন এই তিরন্দাজ। ভুটানের তানজিং দরজিকে হারিয়েছেন ১৩৭-১৩৬ পয়েন্টে। এসএ গেমসে আর্চারি বাংলাদেশের জন্য সেরা খেলা হয়ে উঠেছে। এখানে আজ সকাল পর্যন্ত আটটি সোনা পেয়েছে বাংলাদেশ। গেমসে দেশের জেতা অর্ধেক সোনাই এখন পর্যন্ত এই খেলা থেকে এসেছে।

মেয়েদের ক্রিকেটের সোনার সঙ্গে আর্চারির ৬ সোনাতে গতকাল সাতটি সোনা জিতেছে বাংলাদেশ। গেমসের প্রথম সাত দিনে ৭ সোনা জয়ের পর গতকালেই সংখ্যাটি দ্বিগুণ হয়ে গেছে। আজ সকালে আর্চারির সুবাদে সোনার সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ১৬-তে।

এ নিয়ে আর্চারিতে আটটি সোনা এলো। আর বাংলাদেশর ঝুলিতে জমা পড়লো ১৬টি সোনার পদক।

পিবিএ/জেডআই

আরও পড়ুন...