স্বর্ণের দোকানে ডাকাতির পর মালিককে খুন, ভিডিও ভাইরাল

অন্যদিনের মতোই স্বাভাবিক নিয়মেই চলছিল দোকান। বেশ কয়েকজন গ্রাহককেও এসময় দোকানে বসে থাকতে দেখা যায়। এমনই সময় দোকানে হানা দেয় ডাকাতের দল। ডাকাতির পাশাপাশি স্বর্ণের দোকানের ওই মালিককেও খুন করে তারা।

পুরো এই ঘটনাটি ধরা পড়েছে ওই দোকানের সিসিটিভিতে ফুটেজে। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য বিহারে। রোববার (২৬ জুন) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

এদিকে স্বর্ণের দোকানে ডাকাতি ও এর মালিককে হত্যার ঘটনার সিসিটিভি ফুটেজ সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্মে ভাইরাল হয়েছে। ফুটেজ দেখে অভিযুক্তদের খোঁজে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। যদিও এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি। নিরাপত্তার স্বার্থে সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

পুলিশে সূত্র দিয়ে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম বলছে, গত ২২ জুন বিহার রাজ্যের হাজিপুরের নিলম জুয়েলারি নামের একটি দোকানে ডাকাতির ঘটনাটি ঘটে। সোনার ওই দোকানটি স্থানীয় সুভাষ ও মাদাই চকের মাঝামাঝি এলাকায় অবস্থিত। গত ২২ জুন রাত আটটার দিকে দুষ্কৃতীরা আচমকা সোনার দোকানে ঢোকে।

ডাকাতির ঘটনায় ভাইরাল হওয়া সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যায়, রাত ৮টার দিকে আচমকা ৪ জন যুবক দোকানে প্রবেশ করে। ঢুকেই উপস্থিত ক্রেতাদের ওপর চড়াও হয় তারা।

এক ব্যক্তিকে একাধিকবার চড় মারে একজন দুষ্কৃতী। এক নারী ক্রেতা ও দু’টি শিশুকেও দেখা যায় দোকানে। পরে ওই নারী আতঙ্কে সন্তানদের জাপটে ধরে মেঝেতে বসে পড়েন।

এসময় দোকানের মালিক সুনীল প্রিয়দর্শী দুষ্কৃতীদের বাধা দিলে তাকে দফায় দফায় বেধড়ক মারধর করতে থাকে চার অভিযুক্ত। একইসঙ্গে দোকানে ভাঙচুর চালিয়ে লুটপাট করতে থাকে তারা। পরে দোকানের মালিককে গুলি করে হত্যা করে তারা।

এই ঘটনায় তীব্র আতঙ্ক ছড়িয়েছে হাজিপুর শহরে। পুলিশের ডিএসপি দ্রুত তদন্ত করে অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারের নির্দেশ দিয়েছেন। এছাড়াও ঘটনাস্থল ওই বাজার এলাকায় নিরাপত্তার স্বার্থে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। তবে ঘটনার পর বেশ কয়েকদিন কেটে গেলও এখনও পর্যন্ত একজন দুষ্কৃতীকেও গ্রেপ্তার করা যায়নি।

আরও পড়ুন...