৮২ বছর বয়সেও মেলেনি বয়স্ক ভাতা

পিবিএ,লক্ষ্মীপুর: লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার চররুহিতা ইউনিয়নের এক নিভৃত পল্লীর নাম চরলামছি। সেই গ্রামে বসবাস করেন ৮২ বছরের বৃদ্ধা বুদ্ধি প্রতিবন্ধী ফিরোজা বেগম। চার সন্তানের জননী ফিরোজা ওই গ্রামের মৃত এনায়েত উল্ল্যাহ স্ত্রী। চার মেয়ের মধ্যে দুই মেয়ে ২৭ বছর আগে মারা যায়। অন্য দুই মেয়ের সংসারের আয় থেকে খেয়ে না খেয়ে চলছে । এই বৃদ্ধার জীবনের বাকি দিনগুলো। অথচ আজ পর্যন্ত জোটেনি একটি বয়স্ক ভাতার কার্ড।

সেজো মেয়ে বিলকিস বেগমের সংসারে তিনি বসবাস করেন। বয়সের ভারে এখন ঠিক মত চলতেও পারেন না। তার উপর রয়েছে বার্ধক্যজনিত নানা রোগবালাই। অভাব অনটনের সংসারে মায়ের চিকিৎসা ঠিক মতে করাতে পারছে না মেয়েরা। ১৯৩৭ সালে জন্ম নেওয়া ফিরোজা বেগমের বয়স এখন ৮২ বছর। ৬০ বছর বয়স পূর্ণ হলে বয়স্ক ভাতা পাওয়ার কথা, তিনি কেন বয়স্ক ভাতা পাবেন না?

এর জন্য স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও মেম্বরদের কাছে ধর্না দিয়ে কোনো সুরাহা না হওয়ায় অবশেষে তিনি এসেছেন লক্ষ্মীপুর জেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা কাছে। জেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা নুরুল ইসলাম পাটোওয়ারী পিবিএকে বলেন, বিষয়টি খুবই দু:খ জনক ?

ইউপি চেয়ারম্যান,ও মেম্বারা যদি একটু নজর দিতো তাহলে ৮২ বছরের বৃদ্ধা মহিলার পরিচয় পত্র আমার কাছে আসতো না। তারপরও খোজ নিয়ে দ্রুত প্রয়োজনী ব্যবস্থা নেবেন।

পিবিএ/আলমগীর হোসেন/বিএইচ

আরও পড়ুন...