সময়ের সঙ্গে সঙ্গে পরিবর্তন হয় মানুষের রুচি, চাহিদার। এক সময় বাড়ি ঘরের রং বলতেই ছিল সাদা আর কালো। ধীরে ধীরে মানুষের রুচির পরিবর্তন হয়েছে। এতে করে মনের রং ফুটিয়ে উঠে স্বপ্নের বাড়িতেও। তাই স্বপ্নের বাসস্থানটি মনের মাধুরী মিশিয়ে রাঙাতে আবাসন শিল্পের সঙ্গে বিস্তৃত হয়েছে এর অন্যতম সহযোগী রং শিল্প। এখন শুধু বাড়ীকেই রাঙানো হয় বল্লেই শেষ নয়, বাড়ী-ঘর তৈরীতে বিভিন্ন সরঞ্জাম লাগাতে হয় যেমন, দরজা-জানালা, গ্রীল ও ভেন্টিলেটর। সেগুলোতেও এখন বিভিন্ন রকমের রং দিয়ে রাঙানো হয়। করোনা ভাইরাস এর প্রভাবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় কৃষ্ণ নামের ৮ম শ্রেণীতে পড়ুয়া এক ছাত্র দরিদ্রতার কষাঘাতে এখন সেও বিভিন্ন বাড়ী-ঘরের ভেন্টিলেটর রঙের কাজে ব্যস্ত। ছবিটি মঙ্গলবার দুপুরে হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার আমুরোড বাজার থেকে তোলা। মঙ্গলবার, ০৯ ফেব্রুয়ারী। ছবি : পিবিএ/এম এস জিলানী আখনজী

সময়ের সঙ্গে সঙ্গে পরিবর্তন হয় মানুষের রুচি, চাহিদার। এক সময় বাড়ি ঘরের রং বলতেই ছিল সাদা আর কালো। ধীরে ধীরে মানুষের রুচির পরিবর্তন হয়েছে। এতে করে মনের রং ফুটিয়ে উঠে স্বপ্নের বাড়িতেও। তাই স্বপ্নের বাসস্থানটি মনের মাধুরী মিশিয়ে রাঙাতে আবাসন শিল্পের সঙ্গে বিস্তৃত হয়েছে এর অন্যতম সহযোগী রং শিল্প। এখন শুধু বাড়ীকেই রাঙানো হয় বল্লেই শেষ নয়, বাড়ী-ঘর তৈরীতে বিভিন্ন সরঞ্জাম লাগাতে হয় যেমন, দরজা-জানালা, গ্রীল ও ভেন্টিলেটর। সেগুলোতেও এখন বিভিন্ন রকমের রং দিয়ে রাঙানো হয়। করোনা ভাইরাস এর প্রভাবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় কৃষ্ণ নামের ৮ম শ্রেণীতে পড়ুয়া এক ছাত্র দরিদ্রতার কষাঘাতে এখন সেও বিভিন্ন বাড়ী-ঘরের ভেন্টিলেটর রঙের কাজে ব্যস্ত। ছবিটি মঙ্গলবার দুপুরে হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার আমুরোড বাজার থেকে তোলা। মঙ্গলবার, ০৯ ফেব্রুয়ারী। ছবি : পিবিএ/এম এস জিলানী আখনজী